কলকাতা 

শিক্ষক নিগ্রহ প্রতিবাদে গর্জে উঠল সুশীল সমাজ ; রাজস্থান মডেল অনুসরণ করার হুমকি শিক্ষক সংগঠনগুলির

শেয়ার করুন
  • 4
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বিশেষ প্রতিনিধি : শনিবার নদীয়া জেলার গয়েশপুরে পিআরটি স্কেলে বেতন দেওয়ার দাবিতে উস্তি ইউনাইটেড প্রাইমারি টিচার্স অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যরা মিটিং করছিলেন সেই সময় কয়েক জন দুস্কৃতি তাঁদের উপর হামলা করে বলে অভিযোগ । আর এই হামলার খবর ছড়িয়ে পড়ার সঙ্গে সঙ্গে সামাজিক মাধ্যম থেকে শুরু করে রাজ্যের সচেতন নাগরিকরা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন । বিভিন্ন শিক্ষক সংগঠনের পক্ষ থেকেও এর প্রতিবাদ করা হয়েছে ।

বিশিষ্ট অধ্যাপক রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী ড. আবদুস সাত্তার শিক্ষকদের উপর হামলার তীব্র নিন্দা করে  বাংলার জনরবকে বলেন , শিক্ষকরা হলেন সামাজের সবচেয়ে সম্মানীয় শ্রদ্ধাশীল ব্যক্তি তাঁদের উপর আক্রমণ কোনো সভ্য দেশে হয় না । এখন আমাদের রাজ্য দুস্কৃতিদের মুক্তাঞ্চলে পরিণত হয়েছে তাই আলাদা করে কাউকে আর রেয়াত করা হচ্ছে না। তিনি আরও বলেন , সংবিধান মতে গণতান্ত্রিকভাবে সভা-সমাবেশ –আন্দোলন করার অধিকার রয়েছে সকলের । কিন্ত আন্দোলন করতে গেলে তাদের উপর আঘাত নেমে আসবে এটা গণতান্ত্রিক দেশের কাছে ভালো সংকেত নয় । এখন তো রাজনৈতিক দলগুলিকেও সভা করতে দেওয়া হচ্ছে না । আর নদীয়ায় প্রাথমিক শিক্ষক সংগঠনের কয়েক জন সদস্যের উপর যেভাবে হামলা করা হয়েছে তাতে রাজ্যের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির যে খুব খারাপ হয়েছে তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

অন্যদিকে  প্রাথমিক শিক্ষক সংগঠন WBPTTA-র সভাপতি পিন্টু পাড়ুই জানিয়েছেন “যেকোন ধরনের শিক্ষকদের উপর হামলার দলমত নির্বিশেষে আমরা তীব্র প্রতিবাদ ধিক্কার জানাই। প্রতিবাদী শিক্ষকদের উপর হামলা করাটা শাসকগোষ্ঠীর নীতিগত পেশা হয়ে গেছে।  কিন্তু হামলা করে আমাদেরকে আন্দোলন থেকে সরিয়ে রাখতে পারবে না, অন্যায়ের বিরুদ্ধে শিক্ষক সমাজ লড়াই সর্বদা চালিয়ে যাবে।”

শিক্ষক নেতা চিরঞ্জিত ধীবর জানিয়েছেন শিক্ষকদের উপরে হামলার জন্যে বঙ্গীয় নব উন্মেষ প্রাথমিক শিক্ষক সংঘের পক্ষ থেকে  ধিক্কার জানাই। রাজনীতি ভুলে সব শিক্ষকদের একসাথে গর্জে উঠতে হবে,এই হামলার প্রতিবাদে। তিনি আর বলেন , সামনে লোকসভা ও বিধানসভা ভোট রয়েছে। রাজস্থান মডেল অনুসরন করবে সকল শিক্ষক সহ সরকারি কর্মচারীরা। প্রয়োজনে সরকার পরিবর্তন এর ডাক দেওয়া হবে।

ছবি : প্রতীকি


শেয়ার করুন
  • 4
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment