জেলা 

বনগাঁ বারাসাত এবং কৃষ্ণনগরে মতুয়া ভক্তরা নির্দল প্রার্থী দিচ্ছে, চাপে বিজেপি

শেয়ার করুন

বাংলার জনরব ডেস্ক : রাজ্যের তিনটি মতুয়া অধ্যুষিত লোকসভা কেন্দ্রে প্রার্থী দিচ্ছে ওই সম্প্রদায়ের ভক্তরা। এরা সবাই নির্দল প্রার্থী হিসাবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। মতুয়াদের সংগঠন শান্তিহরি মতুয়া ফাউন্ডেশন পক্ষ থেকে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

আজ বুধবারই সাংবাদিক বৈঠক করে বনগাঁ, কৃষ্ণনগর এবং বারাসত লোকসভা কেন্দ্রের প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করা হবে বলে সংগঠনের তরফে জানানো হয়েছে। শান্তি হরি মতুয়া ফাউন্ডেশন এর অন্যতম কর্মকর্তা দেবব্রত রায় বলেন, ‘‘সিপিএম জমানার শেষ থেকে মতুয়াদের নিয়ে রাজনীতি শুরু হয়। তার পর তৃণমূল এবং বিজেপি তা করে চলেছে। কিন্তু আসল যাঁরা ভক্ত, তাঁরা যে তিমিরে ছিলেন, সেই তিমিরেই রয়ে গিয়েছেন। তাই আমরা চেয়েছি আমাদের প্রার্থী জিতুন।’’

Advertisement

বাম জমানার শেষ দিকে মতুয়াদের সঙ্গে সমন্বয় রাখতেন সিপিএমের প্রাক্তন মন্ত্রী গৌতম দেব। পরে বড়মা বীণাপাণিদেবীর সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা তৈরি হয় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের।  কিন্তু ২০১৯ সালের লোকসভা ভোট থেকেই মতুয়াভূমে শক্ত জমি তৈরি করে বিজেপি। সে বার মতুয়া ভোটের আধিক্য থাকা বনগাঁ এবং রানাঘাটে জয়ী হয় বিজেপি।

যে তিন আসনে শান্তিহরি মতুয়া ফাউন্ডেশন প্রার্থী দিচ্ছে, সেই আসনগুলিতে মতুয়াদের ভালো ভোট রয়েছে। কৃষ্ণনগর এবং বনগাঁর একাংশে সেই ভোট নির্ণায়ক বলেও দাবি রাজনৈতিক মহলের অনেকের। এই পরিস্থিতিতে শান্তি হরি মতুয়া ফাউন্ডেশন এর প্রার্থীরা তিনটি লোকসভা কেন্দ্রের ফলাফলের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিতে পারে। এখন দেখার বিষয় স্বাধীন নির্দল মতুয়া ভক্তদের প্রার্থীরা কোন দলের ভোট কেটে তাদের যাত্রা ভঙ্গ করেন।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ