জেলা 

লোকসভা ভোটের প্রাক্কালে কাঁথির ৩০ তৃণমূল নেতাকর্মীকে তলব সিবিআইয়ের

শেয়ার করুন

বাংলার জনরব ডেস্ক : কয়েকদিন আগেই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অভিযোগ করেছিলেন যে তৃণমূলের বেশ কয়েকজন নেতা কর্মীকে সিবিআই নোটিশ পাঠিয়েছে ভোটের সময়। তাঁর অভিযোগ ওই সকল নেতা কর্মীরা যাতে নির্বাচনের দিন এজেন্টের ভূমিকা পালন করতে না পারে তার জন্যই সিবিআইয়ের এই তৎপরতা। মুখ্যমন্ত্রীর এই অভিযোগের পরেই জানতে পারা যাচ্ছে পূর্ব মেদিনীপুরের কাঁথিতে তৃণমূলের ত্রিশ জন নেতা কর্মীকে সিবিআই তলপ করেছে নোটিশ পাঠিয়ে। তাদেরকে ৪ এপ্রিল ও ৫ এপ্রিল সিবিআই কলকাতার নিজাম প্যালেস দফতরের তলব করা হয়েছিল। কিন্তু এরা কেউই সিবিআই এর মুখোমুখি হননি। এই সকল নেতাকর্মীরা সিপিআইকে চিঠি দিয়ে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে এখন নির্বাচন চলছে যাওয়া সম্ভব নয় নির্বাচনের পরে সব দেখা যাবে।।

শাসকদলের বক্তব্য, বিজেপির ষ়ড়যন্ত্রে এ সব হচ্ছে। লোকের ভোটের আগে কেন্দ্রীয় এজেন্সি দিয়ে ভয় দেখানোর চেষ্টা করা হচ্ছে।

Advertisement

তৃণমূল খবর সূত্রে খবর, গত বিধানসভা ভোটের পর পরেই কাঁথিতে এক বিজেপি নেতা খুনের মামলায় দলীয় নেতা-কর্মীদের তলব করা হয়েছিল। যাঁদের তলব করা হয়েছিল, তাঁদের মধ্যে এক জন হলেন কাঁথি ৩ পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি তথা দলের শ্রমিক সংগঠনের কাঁথি সাংগঠনিক জেলার সভাপতি বিকাশ বেজ। কিন্তু তাঁদের পক্ষ থেকে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থাকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে যে, ভোটের কাজে তাঁরা ব্যস্ত। সেই কারণে তাঁরা হাজিরা দিতে পারবেন না। বিকাশ সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, ‘‘গত ৩ এপ্রিল ১৩ জনকে সিবিআই নোটিস পাঠিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য কলকাতায় ডেকেছিল। ৪ তারিখে সকলকে হাজির হতে নির্দেশ দেওয়া হয়। ৪ তারিখে আরও ১৭ জন তৃণমূল নেতাকে সিবিআই নোটিস পাঠিয়ে ৫ তারিখে ডেকেছিল। তবে সেই নোটিসের জবাবে আমরা জানিয়ে দিয়েছি, নির্বাচনের কাজে ব্যস্ত থাকায় যেতে পারছি না।’’


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ