জেলা 

মুর্শিদাবাদের রানীনগরে ভোট প্রচারে SDPI প্রার্থী তায়েদুল ইসলাম 

শেয়ার করুন

বিশেষ প্রতিনিধি : গতকাল এসডিপিআই-এর মুর্শিদাবাদ লোকসভা কেন্দ্রের প্রার্থী তথা দলের রাজ্য সভাপতি তায়েদুল ইসলাম ভোট প্রচার যান রানীনগর বিধানসভার কালিনগর, কাতলামারী ও রানীনগর অঞ্চলে, গ্রামের দুঃস্থ দরিদ্র অসহায় মানুষদের সাথে সাক্ষাৎ করেন, এসডিপিআই-এর নীতি ও আদর্শ সম্পর্কে অবগত করেন। প্রচার শেষে রানীনগরে ডি. এন ক্লাবের পাশে একটি সভাই সামিল হন সেখানেই তিনি ঘোষণা করেন এসডিপিআই একমাত্র বিকল্প রাজনীতি দল যারা পুঁজিবাদীদের হাত থেকে দেশকে রক্ষা করতে পারে।

তিনি বলেন— 142 কোটি জনতার এই দেশের 75% সম্পদ মাত্র 100 টা পরিবারের হাতে যার কারণে আজও দেশের 22-23 কোটি মানুষকে রাতে না খেয়ে ঘুমাতে হয়, বেকার হয়ে ঘুরে বেড়াতে হয়, দারিদ্রতার সীমা অতিক্রম হয়ে যায়, দেশের এই মর্মান্তিক পরিস্থিতির জন্য শুধুই বিজেপি দায়ী নয়, এর পিছনে দায়ী রয়েছে কংগ্রেস, তৃণমূল সমস্ত রাজনৈতিক দল। তাঁরা তাঁদের ক্ষমতা প্রয়োগ করে, ক্ষমতা থাকা অবস্থায় এমন কোনো আইন তৈরি করেনি যাতে কারো হাতে সমস্ত সম্পদ চলে না যায়, তাঁরা সবাই নিজের সুবিধার্থে, নিজে ভোগ করার স্বার্থে দেশের এই বেহাল অবস্থা করেছে। এই অবস্থা থেকে বের করতে যদি কোনো রাজনৈতিক দল পারে সেটা সোস্যাল ডেমোক্র্যাটিক পার্টি অফ ইন্ডিয়া।

Advertisement

তিনি এসডিপিআই-এর লক্ষ্য উদ্দেশ্য সম্পর্কে দীর্ঘক্ষণ বক্তব্য রাখেন এবং সিপিএমের সাম্প্রদায়িক রাজনীতি সম্পর্কে মানুষকে অবগত করেন, তিনি বলেন 1992 সালে বাবরি মসজিদ ধংস করতে যাওয়া আদবানির রথ তৎকালীন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী জ্যোতি বসু ভূমিকা নিয়েছেন।

দলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক হাকিকুল ইসলাম বিজেপি বিরোধী রাজনৈতিক দল গুলোকে সুবিধাবাদী বলে কটাক্ষ করেন, তিনি বলেন— বাংলায় যদি সিপিআইএম, কংগ্রেস, তৃণমূল জোট হয়ে যেতো তবে বিজেপি শুন্য হয়ে যেতো, কিন্তু তাঁরা তো বিজেপিকে পরাজিত করে দেশ বাঁচাতে ময়দানে নামেনি, তাঁরা নেমেছে নিজের দল বাঁচাতে, ভোগ করার জন্য আসন দখল করতে। এছাড়াও তিনি নির্বাচনী বন্ড সম্পর্কে বক্তব্য রাখেন, অধীর চৌধুরীকে সুক্ষ হিন্দুত্ববাদী বলে অভিহিত করেন।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ