কলকাতা 

একই ওয়ার্ডের ১৪ টি বেআইনি নির্মাণ ভেঙে ফেলার নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : কলকাতা পুরসভার এলাকার মধ্যে পরপর চৌদ্দটি বেআইনি বাড়ি ভেঙে ফেলার নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি অমৃতা সিনহা। আগামী ৭ সপ্তাহের মধ্যে ওই বিল্ডিং গুলো ভেঙ্গে কলকাতা পুরসভার ডিজি বিল্ডিংকে হাইকোর্টে রিপোর্ট দিতে হবে। এই মর্মে আজ নির্দেশ জারি করেছে কলকাতা হাইকোর্ট।

না এই ঘটনা গার্ডেনরিচের নয় কিংবা আলিমুদ্দিন স্ট্রিট কিংবা  পার্ক সার্কাসের নয় ঘটনাটি ঘটেছে কলকাতা পুরসভার ২৯ নম্বর ওয়ার্ডের তিন নম্বর বোরোয়। ওই এলাকায় দেদার বেআইনি নির্মাণ হচ্ছে, এই অভিযোগে একটি মামলা দায়ের হয়েছিল কলকাতা হাইকোর্টে। মামলার প্রেক্ষিতে পুরসভার আধিকারিকদের জায়গা পরিদর্শনের নির্দেশ দিয়েছিলেন বিচারপতি অমৃতা সিনহা।

Advertisement

মঙ্গলবার সংশ্লিষ্ট মামলার শুনানিতে পুরসভার তিন ইঞ্জিনিয়ার রিপোর্ট দিয়ে জানিয়েছেন, ২৯ নম্বর ওয়ার্ডের ৪৪/১ ক্যানাল ইস্ট রোডে এমন মোট ১৪ টি নির্মাণ রয়েছে যেগুলির কোন অনুমোদন প্ল্যান নেই। বিষয়টি শোনার পরই বিচারপতি সিনহা প্রশ্ন তোলেন, “এতদিন ধরে, কলকাতা পুরসভা কি করছিল?”

পুরসভার আইনজীবী জানান, ইতিমধ্যেই ওই বেআইনি নির্মাণগুলিকে পুর আইনের ৪০১ নম্বর ধারায় নোটিশ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু কীভাবে পুরসভার নজর এড়িয়ে পর পর চোদ্দটি বেআইনি নির্মাণ গড়ে উঠল তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে উচ্চ আদালত।

এরপরই বিচারপতি সিনহা নির্দেশ দেন, অবিলম্বে ডিজি বিল্ডিংকে এ ব্যাপারে পদক্ষেপ করতে হবে। আগামী সাত সপ্তাহের মধ্যে ওই ১৪ টি বেআইনি নির্মাণ ভেঙে ফেলার ব্যবস্থা করতে হবে বলেও নির্দেশে উল্লেখ করেছেন বিচারপতি।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ