কলকাতা 

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সম্পর্কে কুরুচি কর মন্তব্য করে আদর্শ আচারণ বিধি ভেঙেছেন সতর্কবার্তায় দিলীপকে জানালো নির্বাচন কমিশন

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সম্পর্কে বিতর্কিত মন্তব্য করে নির্বাচনী বিধি ভঙ্গ করেছেন দিলীপ ঘোষ বলে জানিয়ে দিল নির্বাচন কমিশন। নির্বাচন কমিশন আজ সোমবার বর্ধমান দুর্গাপুর লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী দিলীপ ঘোষ কে চিঠি দিয়ে সতর্ক করেছে  বিরূপ মন্তব্য করার জন্য। ভবিষ্যতে এই ধরনের যাতে মন্তব্য না করে সেই ব্যাপারেও সতর্ক করা হয়েছে। একইসঙ্গে এই চিঠির অনুলিপি পাঠানো হয়েছে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নড্ডাকেও।

গত মঙ্গলবার দিলীপ ঘোষ মুখ্যমন্ত্রী সম্পর্কে বলেছিলেন, ‘‘বিহার, ইউপি থেকে দিদি গোয়াতে গিয়ে বলেন গোয়ার মেয়ে। ত্রিপুরাতে গিয়ে বলেন ত্রিপুরার মেয়ে।’’ এর পরেই তিনি মমতার উদ্দেশে কুরুচিকর ব্যক্তিগত আক্রমণ করেন বলে অভিযোগ। মমতাকে নিয়ে দিলীপের মন্তব্যের প্রতিবাদে নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হয় তৃণমূল। নির্বাচন কমিশনের কলকাতা দফতরে গিয়ে দিলীপের বিরুদ্ধে নালিশও ঠুকে আসে তৃণমূলের ১০ সদস্যের প্রতিনিধিদল। তারই প্রেক্ষিতে রিপোর্ট চায় কমিশন। তার পরই দিলীপকে শো-কজ়ের নোটিস ধরানো হয়। মঙ্গলবার দিলীপের নিন্দা করে বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্বও শো-কজ় নোটিস ধরায় তাঁকে। যত দ্রুত সম্ভব এ হেন আচরণের ব্যাখ্যা চাওয়া হয়।

Advertisement

সোমবার কমিশনের তরফে একটি বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়, তারা দিলীপের মন্তব্য শুনে এই সিদ্ধান্তে এসেছে যে, বিজেপি প্রার্থী অত্যন্ত নিচু মানের ব্যক্তিগত আক্রমণ করেছেন এবং আদর্শ নির্বাচনী আচরণবিধি (এমসিসি) লঙ্ঘিত করেছেন।

ভারতীয় সমাজে মেয়েদের যে একটি উঁচু স্থান রয়েছে সে কথাও স্মরণ করিয়ে দিয়েছে কমিশন। কমিশনের তরফে বলা হয়েছে নির্বাচনী প্রক্রিয়ায় মেয়েদের অংশগ্রহণ এবং প্রতিনিধিত্ব বৃদ্ধি করতে কাজ করে চলেছে তারা। এই আবহে মেয়েদের অবস্থানের কোনও ক্ষতি হলে তারা বিষয়টি মেনে নেবে না বলে জানিয়েছে কমিশন। দিলীপের উদ্দেশে কমিশনের বার্তা, আদর্শ নির্বাচনী আচরণবিধি চলার সময়ে তিনি যেন সতর্ক থাকেন। এই প্রসঙ্গে দিলীপকে জিজ্ঞাসা করা হলে দিলীপ বলেন, “ভাষা যাতে ঠিক থাকে, সেই বিষয়ে আমি সতর্ক থাকব।” একই সঙ্গে তিনি বলেন, “আগের বারে গত নির্বাচনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেও নিষিদ্ধ করেছিল। বহু লোকের এটা হয়। পশ্চিমবাংলায় যে ধরনের রাজনীতি হয়, সেটা হয়তো কমিশন অনুমোদন করবে না। তবে সবারই এই ব্যাপারে সতর্ক থাকা উচিত।”

হিমাচল প্রদেশের মান্ডি কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী তথা অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত সম্পর্কে আপত্তিকর মন্তব্য করায় অভিযুক্ত কংগ্রেসনেত্রী সুপ্রিয়া শ্রীনতেকেও সোমবার সতর্ক করেছে নির্বাচন কমিশন।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ