জেলা 

ডাঃ মহেশ ভট্টাচার্যের আবক্ষ মূর্তির উন্মোচন অনুষ্ঠান

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আসাদ আলী-বাংলার জনরবঃ ভারতের পশ্চিমবঙ্গের হাওড়ার মহেশ ভট্টাচার্য হোমিওপ্যাথি মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের সুনাম দেশ-বিদেশ সর্বজনবিদিত। সেই কলেজের প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত বিশিষ্ট হোমিওপ্যাথি ডাক্তার মহেশচন্দ্র ভট্টাচার্য । শুধুমাত্র এই কলেজের একজন প্রতিষ্ঠাতাই ছিলেন না, ছিলেন একজন বিশিষ্ট প্রাজ্ঞ দূরদৃষ্টি সম্পন্ন চিকিৎসক ও লেখক ও ‘এম ভট্টাচার্য’নামের হোমিওপ্যাথি ওষুধ প্রস্তুত কারী প্রথম সারির সংস্থার কর্ণধার, একটি সময় পৃথিবীর প্রায় ৩০ টির ও বেশি দেশের মানুষের কাছে এই সংস্থার ওষুধ পরম বিশ্বাস ও শ্রদ্ধার সাথে কিনতেন। এখনও একটু ভাঁটা পড়লেও তা বহমান। আজ ২৩/০৩/২০২৪ তারিখ তাঁরই প্রতিষ্ঠিত এই কলেজে তাঁর আবক্ষ মূর্তি উন্মোচন উপলক্ষে ছিল হোমিওপ্যাথির উপরে সুন্দর একটি আলোচনা সভা ।

প্রাক্তনী হোমিও চিকিৎসক ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন হোমিওপ্যাথির বিশিষ্ট চিকিৎসকগণ । অল বেঙ্গল হোমিওপ্যাথি ডক্টর ফোরামের চেয়ারম্যান তথা নিতাই চরণ চক্রবর্তী হোমিওপ্যাথি মেডিকেল কলেজের বিভাগীয় প্রধান ডাক্তার কে এ মোহিত , মূর্তির রক্ষণাবেক্ষণ ও এন এম সি বিলের পরিপ্রেক্ষিতে কলেজ গুলির কিভাবে পরিবর্তিত হওয়া দরকার সে সম্পর্কে সুন্দর এক আলোচনা করেন, কলেজ গুলির বাইরে চাকচিক্য বাড়লেও সঠিক পরিকল্পনার অভাবে ভিতরে অন্তঃসারশূন্যতার কারণে হোমিওপ্যাথির সমূহ ক্ষতির সম্ভাবনাগুলি উন্মোচন করেন। প্রিন্সিপাল প্রাক্তন এবং বর্তমান ছাত্র-ছাত্রীদের সহযোগিতায় একটি কমিটি তৈরি করা হয়। প্রত্যেক ব্যাচ থেকে একজন করে নাম প্রস্তাব রাখা হয় । শিক্ষা ও প্র্যাকটিসের সংকোচন নিয়ে বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক ডাক্তার দেবাঞ্জন শাসমল, ডাক্তার তাপস পাল । বক্তব্য রাখেন ডাক্তার অরিজিৎ মান্না, অধ্যাপক ডাক্তার অসীম দাস । স্মৃতিচারণা করেন অধ্যাপক ডাক্তার অমিত কুমার দত্ত ও ডাক্তার অমিত ব্যানার্জি । সঞ্চালনায় ছিলেন প্রিন্সিপাল ডাক্তার মাধব সাহা।

Advertisement

 

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ