জেলা 

ইউসুফ পাঠান ব্যাপক ভোটের ব্যবধানে অধীরকে হারাবেন বললেন ‘বিদ্রোহী’ হুমায়ুন! বারানসিতে মোদি কী বহিরাগত? প্রশ্ন পাঠানের

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক  : জীবনের দ্বিতীয় ইনিংস খেলতে নেমেছেন বিশ্বকাপ জয়ী ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ইউসুফ পাঠান। তৃণমূল প্রার্থী হিসেবে প্রায় এগারো দিন পর বহরমপুরে পা দিলেন পাঠান। প্রথম দিনেই বলা যেতে পারে মানুষের মন তিনি জয় করে নিয়েছেন। এতদিন ধরে যে প্রচার চালানো হচ্ছিল বহরমপুর জুড়ে, যে ইউসুফ পাঠান বহিরাগত। তিনি প্রচারের প্রথম দিনই বলে দিলেন তিনি বাংলায় থাকতে এসেছেন। বহরমপুরে থাকতে এসেছেন। বহরমপুরের মানুষকে আপন করতে এসেছেন। একই সঙ্গে তিনি বললেন গুজরাটের মানুষ হয়ে নরেন্দ্র মোদী যদি বারাণসীর সাংসদ হতে পারেন, আমি কেন বহরমপুরের সাংসদ হতে পারব না। নরেন্দ্র মোদিকে তো কেউ বহিরাগত বলছেন না আর আমি তো বাংলায় থাকতে এসেছি দিদি বলেছেন আমি যদি জিতি এই বাংলায় যত রকম মিষ্টি আছেন সব তিনি খাওয়াবেন। আমি সেই প্রতীক্ষায় রয়েছি।

গুজরাটের মানুষ এবং প্রাক্তন ক্রিকেটার ইউসুফ পাঠানের মুখে এই ধরনের আবেগময় বক্তব্য শোনার পর খানিকটা লাফিয়ে ওঠেন ভরতপুরের বিধায়ক হুমায়ুন কবীর। কয়েকদিন আগে পর্যন্ত এই হুমায়ুন কবীর ইউসুফ পাঠানের প্রার্থী পদের বিরোধিতা করেছিলেন। এমনকি ইউসুফকে প্রার্থী পদ থেকে না সরানো হলে তিনি নির্দল হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন বলে হুমকি দিয়েছিলেন। এই হুমায়ুন কেই দেখা গেল আজ প্রথম থেকেই ইউসুফ পাঠানের সঙ্গে এবং তাকে স্বাগত জানালেন তিনিই। এরপরই হুমায়ুন সাংবাদিকদের বলেন ইউসুফ পাঠান অনেক ভোটের ব্যবধানে এবার অধীর চৌধুরীকে হারাবেন, অধীর চৌধুরী কত বড় বাঘ দেখে নেব।

Advertisement

হুমায়ুন কবীর কিংবা ইউসুফ পাঠান যেটাই বলুক না কেন আসলে বহরমপুরের লড়াই খুব কঠিন লড়াই। অধীর চৌধুরীর মত জনপ্রিয় একজন নেতাকে হারাতে হলে গুজরাট থেকে বহিরাগত কোন মুসলিম ব্যক্তিকে আনা যে কতটা আত্মঘাতী সিদ্ধান্ত হয়েছে তৃণমূল কংগ্রেসের সেটা ভোটের পরেই স্পষ্ট হয়ে যাবে। এলাকার মানুষ বলছে তৃণমূল কংগ্রেস প্রকৃত অর্থে ইউসুফ পাঠানকে এখানে প্রার্থী করে অধীর রঞ্জন চৌধুরীকে এই সিটটা ওয়াকওভার দিল।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ