কলকাতা 

গার্ডেনরিচ কান্ডের দায় এড়াতে পারেন না মেয়র : নওশাদ সিদ্দিকী

শেয়ার করুন

বিশেষ প্রতিনিধি : গার্ডেনরিচে বেআইনী বহুতল বাড়ি ভেঙে পড়ার দায় কলকাতার মেয়র তথা রাজ্যের তৃণমূল কংগ্রেস সরকারের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম এড়িয়ে যেতে পারেন না। আজ মঙ্গলবার দুর্ঘটনাস্থল পরিদর্শন করার পর ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্টের চেয়ারম্যান, বিধায়ক নওসাদ সিদ্দিকী সাংবাদিকদের একথা বলেন। তিনি বলেন, কিসের জন্য এঁরা জনপ্রতিনিধি হয়েছেন? দু’বারের মেয়র এখন বলছেন যে বেআইনী বাড়ির তালিকা প্রস্তুত হচ্ছে। এতদিন করা হয়নি কেন? এটা শুধু দুঃখজনকই নয়, এটা লজ্জার বিষয়।

তিনি বলেন, ঘটনার দায় থেকে হাত ধুয়ে না ফেলে অবৈধ নির্মাণকাজের বিরুদ্ধে অতি দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হোক। গার্ডেনরিচের ঘটনায় যিনিই দোষী তার বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা হোক। তবে আইএসএফ বিধায়ক এটাও আশঙ্কা প্রকাশ করেন যে তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে প্রমোটাররাজের এমন গাঁটছড়া বাঁধা আছে যে সত্যিই কোন কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া বোধহয় এই প্রশাসনের সম্ভব নয়। এই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, পুকুর বুজিয়ে এই বেআইনী বাড়ি নির্মিত হচ্ছিল। এইরকমভাবে তাঁর বিধানসভা এলাকা ভাঙড়েও জলাভূমি বুজিয়ে ফেলা হচ্ছে। এতে শুধুমাত্র পরিবেশের বাস্তুতন্ত্রই নষ্ট হচ্ছে না; পাশাপাশি, ঐ এলাকার দরিদ্র মানুষগুলির রুজি রোজগার ও জীবনযাত্রা নষ্ট হতে বসেছে। এই নিয়ে বিধানসভায় তিনি একাধিকবার সরব হয়েছেন, সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে চিঠিপত্র দিয়েছেন। কিন্তু সরকার উদাসীন থেকেছে। তিনি গার্ডেনরিচে ভেঙে যাওয়া বাড়ির পাশে ঝুপড়িবাসীদের উপযুক্ত আশ্রয় দেওয়ার জন্য প্রশাসনের কাছে অনুরোধ করেছেন।

Advertisement

তিনি বলেন, এখন রমজান মাস চলছে। আক্রান্ত পরিবারের অনেকেই রোযা করছেন। অনেকেই আতঙ্কিত। এদের উপযুক্ত আর্থিক ক্ষতিপূরণ সহ পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করা হোক। তিনি স্থানীয় একটি হাসপাতালে গিয়ে আহতের সঙ্গে কথাও বলেছেন। তবে এলাকায় প্রেস ও গণমাধ্যমের ওপর যেরকম পুলিশী নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে তার তিনি কড়া নিন্দা করেন। এটা সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতার ওপর হস্তক্ষেপ। এভাবে দুর্ঘটনাটি ধামাচাপা দেওয়ার অপচেষ্টা করা হচ্ছে বলে তিনি মন্তব্য করেন।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ