কলকাতা 

তৃণমূল ছাড়ছেন অর্জুন ? ফিরহাদের সমঝোতা সূত্র নিয়ে কী বললেন ব্যারাকপুরের বিদায়ী সাংসদ?

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : দল ছাড়ার পথে অর্জুন সিংহ । ব্যারাকপুরের এই বিদায়ী সাংসদকে শেষ পর্যন্ত বোঝানোর দায়িত্ব নিয়েছিলেন কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিম । কিন্ত তাতে কোনো লাভ হয়নি তা মঙ্গলবার সকালেই স্পষ্ট হয়ে গেছে । অর্জুন সিংহ বলেছেন,তৃণমূলে তাঁর প্রয়োজন ফুরিয়েছে, সেই জন্য তাঁকে ‘ছুড়ে ফেলা হয়েছে’ । ঘটনাচক্রে মঙ্গলবারই তাঁর দফতর থেকে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি সরানো হয়েছে। ব্যারাকপুরের সাংসদকে এ ব্যাপারে প্রশ্ন করা হয়েছিল তবে কি তৃণমূল ছাড়ছেন? জবাবে তিনি বলেন, ‘‘দলে এখন আমি অবাঞ্ছিত (আনওয়ান্টেড)। আমার কোনও চাহিদা ছিল না। কিন্তু আমার দেড় বছর নষ্ট করা হল।’’ সঙ্গে জুড়ে দিলেন, ‘‘ কিছু দিনের মধ্যেই জানতে পারবেন আমি কী করতে চলেছি। আমার ডেথ ওয়ারেন্টে সই করে দেওয়া হয়েছে। মানুষকে আমাকে বোঝাতে হবে আমি কোনও ভুল করিনি। ’’

লোকসভা ভোটে দলের টিকিট না পেয়ে এর আগেও ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন ব্যারাকপুরের বিদায়ী সাংসদ অর্জুন সিংহ। এক  টিভি সাক্ষাৎকারে আবার উগরে দিলেন ক্ষোভ।  তা হলে কি এ বার পার্থ ভৌমিক বনাম অর্জুন সিংহের লড়াই দেখা যাবে ব্যারাকপুরে? এর  উত্তরে অর্জুনের মন্তব্য, ‘‘তাই তো হওয়া উচিত। তবে পার্থ আমার ভাল বন্ধু।’’ তাঁর কাছে জানতে চাওয়া হয়েছিল, তিনি কি তবে বন্ধুর বিরুদ্ধেই লড়বেন? তিনি বলেন, ‘‘কোথাও না কোথাও কোনও না কোনও বন্ধুদের মধ্যেই লড়াই হয়। মোদীজি বলেছেন, কারও সঙ্গেই সম্পর্ক খারাপ করা উচিত নয়।’’

Advertisement

সোমবারই অর্জুন বলেছিলেন, তাঁকে ফোন করেছিলেন ফিরহাদ হাকিম। মঙ্গলবার বললেন, ‘‘আমাকে ফিরহাদ ফোন করে ললিপপ দেওয়ার চেষ্টা করেছিল।’’ ‘ললিপপ’ কী? অর্জুন ঘনিষ্ঠদের ব্যাখ্যা, অর্জুন বরাহনগর আসন থেকে বিধায়ক হওয়ার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল। সম্প্রতি ওই আসনের বিধায়ক তাপস রায় ইস্তফা দিয়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। অর্জুনকে ওই আসন থেকে জিতিয়ে রাজ্যে মন্ত্রিত্ব দেওয়া হতে পারে বলেও নাকি প্রস্তাব দেওয়া হয়। তবে অর্জুন ব্যারাকপুরের মাটি ছাড়তে চান না বলেই আপাতত সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ