কলকাতা 

গৃহীত হল তাপস রায়ের পদত্যাগপত্র

শেয়ার করুন

বাংলার জনরব ডেস্ক : সোমবার বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছিলেন তাপস রায়। বৃহস্পতিবার তাঁর ইস্তফাপত্র গ্রহণ করলেন বিধানসভার স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়।

স্পিকার জানান, বুধবারই লিখিত ভাবে পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছিলেন তাপস। প্রথা মোতাবেক, স্পিকার তাপসকে জিজ্ঞাসা করেন, তিনি কোনও চাপের কাছে নতিস্বীকার না করে স্বেচ্ছায় এই ইস্তফা দিচ্ছেন কি না। উত্তরে তাপস জানান, স্বেচ্ছায় এবং স্বতঃপ্রণোদিত ভাবে তিনি বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন। তার পরেই স্পিকার তাপসের উত্তরে সন্তুষ্ট হন এবং পদত্যাগপত্র গৃহীত হয়। পদত্যাগপত্র গৃহীত হওয়ার কথা জানান তাপসও।

Advertisement

পুরনো সম্পর্কের কথা উঠে আসে স্পিকার এবং তাপস— দু’জনের কথাতেই। স্পিকার বলেন, “আমরা দীর্ঘ দিন এক সঙ্গে কাজ করেছি। অনেকেই এসেছেন, অনেকেই চলে গিয়েছেন। এটা গতানুগতিক একটি নিয়ম। কিন্তু আমাদের কাজ আমাদের করে যেতে হবে।” স্পিকার সম্পর্কে তাপসও বলেন, “দীর্ঘ দিনের সম্পর্ক। ১৯৮৫ সালে আমরা এক সঙ্গে কাউন্সিলর ছিলাম।”

সোমবার বিধানসভায় গিয়ে স্পিকারের সামনে ইস্তফা দিয়েছিলেন তাপস। স্পিকার জানিয়েছিলেন, তাপসের ইস্তফার বিষয়ে মঙ্গলবার তিনি সিদ্ধান্ত জানাবেন। পরে বিধানসভার সচিবালয়ের তরফে জানানো হয়, তাপসের শুনানি হবে বুধবার। কোনও বিধায়ক পদত্যাগ করার পর তাঁর ইস্তফাপত্রে কোনও ত্রুটি আছে কি না, তা খতিয়ে দেখে বিধানসভার সচিবালয়। তার পর শুনানির জন্য ডেকে পাঠানো হয় ওই বিধায়ককে। কিন্ত বুধবার স্পিকার জানান, তাপসের ইস্তফায় ‘পদ্ধতিগত ত্রুটি’ রয়েছে। তাপসকে বৃহস্পতিবার ফের আসতে বলা হয়। জানা যায়, যন্ত্রে টাইপ করে ইস্তফার চিঠি দিয়েছিলেন তাপস। সেটি হাতে লিখে জমা দিতে হয়। তাপস জানান, বৃহস্পতিবার হাতে লেখা চিঠি তিনি নিয়ে আসবেন।

 


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ