দেশ 

উত্তরপ্রদেশের আমেথি ও রায়বেরেলি থেকে প্রার্থী হচ্ছেন রাহুল ও প্রিয়াঙ্কা!

শেয়ার করুন

বাংলার জনরব ডেস্ক : উত্তর প্রদেশের আমেথি ও রায়বেরেলিতে কংগ্রেসের প্রার্থী হচ্ছেন রাহুল গান্ধী ও প্রিয়াঙ্কা গান্ধী জাতীয় কংগ্রেস সূত্রে এই খবর পাওয়া গেছে। এর আগে ইন্ডিয়া জোটের পক্ষ থেকে গান্ধী পরিবারের কাছে আবেদন করা হয়েছিল এই দুটি কেন্দ্রে তাদের প্রার্থী দেওয়ার জন্য।সেই দাবি মেনে অমেথি থেকে রাহুল গান্ধী এবং রায়বরেলী থেকে তাঁর বোন প্রিয়ঙ্কা গান্ধী বঢরা প্রার্থী হতে পারেন বলে কংগ্রেসের একটি সূত্র জানাচ্ছে।

ওই সূত্র উদ্ধৃত করে প্রকাশিত খবরে দাবি, কেরলের ওয়েনাড়ের সাংসদ রাহুল তাঁর পুরনো কেন্দ্র অমেথির পাশাপাশি দক্ষিণ ভারতের কোনও একটি কেন্দ্র থেকে প্রার্থী হবেন বলে সিদ্ধান্ত হয়েছে। অন্য দিকে, ১৯৯৯ থেকে ২০১৯ পর্যন্ত টানা ছ’টি ভোটে কংগ্রেসের জেতা রায়বরেলীতে প্রার্থী হতে পারেন প্রিয়ঙ্কা।

Advertisement

অমেঠী-রায়বরেলী থেকে গান্ধীদের কেউ প্রার্থী না হলে নরেন্দ্র মোদী-সহ বিজেপি নেতৃত্ব যে তা প্রচারে তুলে ধরবেন, তার ইঙ্গিত মিলেছে ইতিমধ্যেই। রায়বরেলীর সাংসদ সোনিয়া রাজস্থান থেকে রাজ্যসভায় নির্বাচিত হওয়ার পরেই গত শনিবার বিহারের জনসভায় মোদী বলেন, ‘‘আমি সংসদেই বলেছিলাম, সবাই পালাচ্ছে। আপনারা দেখছেন, এ বার লোকসভা থেকে লড়তেই কেউ রাজি হচ্ছেন না। রাজ্যসভার আসন খুঁজছেন।’’

উত্তরপ্রদেশে ‘ইন্ডিয়া’ র আসন সমঝোতায় এসপি কংগ্রেসকে ১৭টি আসন ছেড়েছে। যার মধ্যে রয়েছে অমেথি এবং রায়বরেলী।

অতীতে আসন সমঝোতা না হলেও এসপি গান্ধী পরিবারের প্রতি সৌজন্যের খাতিরে অমেথি-রায়বরেলীতে প্রার্থী দিত না। ২০১৯ সালেও ওই দু’টি কেন্দ্রে কংগ্রেসকে সমর্থন করেছিলেন অখিলেশ। তবে রায়বরেলীতে সনিয়া জিতলেও অমেথিতে বিজেপি প্রার্থী স্মৃতি ইরানির কাছে হেরে গিয়েছিলেন রাহুল।

প্রসঙ্গত, ২০০৪ সাল থেকে রায়বরেলী থেকে একটানা পাঁচ বার (২০০৬-এর উপনির্বাচন-সহ) লোকসভা ভোটে জিতেছেন সনিয়া। তবে ২০১৯-এর লোকসভা ভোটে উত্তরপ্রদেশের রায়বরেলীতে জিতে আসার পরেই সোনিয়া ঘোষণা করেছিলেন শারীরিক কারণে আর তার পক্ষে সংসদের নিম্নকক্ষের ভোটে দাঁড়ানো সম্ভব নয়। অন্য দিকে, রাহুল ২০০৪ থেকে ২০১৪ পর্যন্ত তিন বার লোকসভা ভোটে আমেথি থেকে জয়ী হয়েছেন।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ