দেশ 

দেশের সবচেয়ে প্রবীণতম সাংসদ চলে গেলেন, শোকের ছায়া রাজনৈতিক মহলে

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করে দেশের সবচেয়ে প্রবীণ সাংসদ শফিকুর রহমান বর্ক চলে গেলেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৯৪ বছর। তিনি দীর্ঘদিন ধরে সাংসদ পদে ছিলেন। গত লোকসভা নির্বাচন অর্থাৎ ২০১৯ এর লোকসভা নির্বাচন নির্বাচনে তিনি উত্তরপ্রদেশের সম্ভল লোকসভা কেন্দ্র থেকে নির্বাচিত হয়ে সংসদে এসেছিলেন।দীর্ঘ দিন ধরেই বার্ধক্যজনিত রোগে ভুগছিলেন তিনি। মঙ্গলবার মোরাদাবাদের একটি হাসপাতালে তাঁর মৃত্যু হয়। সকালে মৃত্যুর খবর জানায় তাঁর দল এসপি। দলের এক্স (সাবেক টুইটার) হ্যান্ডলে লেখা হয়, “একাধিক বারের সাংসদ শফিকুর রহমান বর্কের মৃত্যুতে আমরা দুঃখিত। তাঁর আত্মার শান্তি কামনা করি।” শফিকুরের পবিবারকে সমবেদনা জানিয়ে নিজের এক্স হ্যান্ডলে একটি পোস্ট করেন এসপি প্রধান তথা উত্তরপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী অখিলেশ সিংহ যাদব।

উত্তরপ্রদেশের সম্ভল কেন্দ্রের সাংসদ ছিলেন শফিকুর। ২০০৯ এবং ২০১৯ সালে সম্ভল থেকে জিতে তিনি লোকসভায় যান। তার আগে ১৯৯৬, ১৯৯৮ এবং ২০০৪ সালে মোরাদাবাদ লোকসভা আসন থেকে জয়ী হন তিনি। সম্ভল থেকে চার বার বিধায়ক হিসাবে নির্বাচিত হয়েছিলেন শফিকুর। হয়েছিলেন উত্তরপ্রদেশের মন্ত্রীও।

Advertisement

দেশের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী চৌধরি চরণ সিংহের হাত ধরে রাজনীতিতে আসেন শফিকুর। যে সব নেতা মুলায়ম সিংহ যাদবের সঙ্গে এসপি গঠন করেছিলেন, তাঁদের মধ্যে শফিকুর ছিলেন অন্যতম। দেশের বিবিধ বিষয়ে মুসলমান সম্প্রদায়ের হয়ে শক্তিশালী স্বর হিসাবে তাঁকে শ্রদ্ধা করতেন সব রাজনৈতিক দলের নেতারাই। গত বছর সংসদের বিশেষ অধিবেশনে শফিকুরকে বসে থাকতে দেখে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেছিলেন, “৯৩ বছর বয়সেও সম্ভলের সাংসদ শফিকুর রবমান বর্ক এখানে বসে রয়েছেন। সংসদের প্রতি এমনই আনুগত্য থাকা উচিত।”


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ