দেশ 

২০২৪ এর লোকসভা নির্বাচনে নরেন্দ্র মোদি আর ক্ষমতায় ফিরবেন না : শারদ পাওয়ার

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : নরেন্দ্র মোদি ২০২৪ এর লোকসভা নির্বাচনে আর ক্ষমতায় ফিরতে পারবেন না বলে মন্তব্য করেছেন মহারাষ্ট্রের প্রবীণ রাজনীতিবিদ প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী শারদ পাওয়ার।

তিনি বৃহস্পতিবার বলেন, ‘মোদী হ্যায় তো মুমকিন হ্যায়’ স্লোগান মারাঠা রাজ্যে এসে মুখ থুবড়ে পড়বে। ইন্ডিয়া জোট এবং মহা বিকাশ আঘাড়ি বিজেপির প্রচার-মন্ত্রকে ব্যর্থ করে দেবে।দেশের বর্ষীয়ান এই নেতার দাবি, ২০২৪ সালের লোকসভা ভোটে জিততে পারবে না বিজেপি। ওদের ভিতরে সেই আত্মবিশ্বাস নেই। তাই ওরা ভয় পেয়ে বিভিন্ন রাজ্যে দল ভাঙানোর খেলায় নেমেছে। জোট ভাঙিয়ে সরকার দখল করছে।

Advertisement

কোলাপুরে সাংবাদিকদের সামনে বহুবারের প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ও ‘কিংমেকার’ পাওয়ার বলেন, এবারে আর মোদী হ্যায় তো মুমকিন হ্যায় স্লোগানকে সত্য করা মুশকিল। দেশের বিভিন্ন ঘটনাবলিতেই মানুষ মোদীর মুখকে আর মেনে নিতে পারছেন না। দীর্ঘদিনের অভিজ্ঞ রাজনীতিক পাওয়ার বুঝিয়ে দেন মোদী এবং তাঁর দলও সেটা টের পাচ্ছে দেশবাসীর আচরণে।

পাওয়ার বলেন, এবারের লোকসভা নির্বাচনে জেতার ব্যাপারে ওরা পুরোপুরি আত্মবিশ্বাসী নয়। বিরোধীদের ঐক্য দেখে ওদের বিশ্বাসে চিড় ধরছে। তাই ওরা পূর্ণ শক্তিতে বিভিন্ন দলকে ভাঙার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। নীতীশ কুমারের নাম না করে বলেন, গুরুত্বপূর্ণ নেতাদের কোলে টেনে নিচ্ছে।

মারাঠা রাজনীতিতে উদ্ধব ঠাকরের শিবসেনা ভাঙার পর কিছুদিনের মধ্যেই ইন্ডিয়া জোটের অন্যতম শরিক শরদের এনসিপিতেও ভাঙন ধরায় বিজেপি। যা মারাঠিরা ভালো চোখে নেননি বলে মনে করেন পাওয়ার। তাঁর দাবি, কিছু সমীক্ষায় দেখা যাচ্ছে, লোকসভা ভোটে ওরা যত আসনের স্বপ্ন দেখছে, তত আসন পাবে না ওরা। মহারাষ্ট্রের এক সমীক্ষা বলছে এখানে বিজেপি ৫০ শতাংশ আসনেও জিততে পারবে না।

অতীতের দৃষ্টান্ত তুলে ধরে পাওয়ার বলেন, ১৯৮০ সালে আমার দলের ৬৯ জন বিধায়ক জিতেছিলেন। আমি একটি বিদেশ সফর থেকে ফেরার পরই ৬ জন বাদে সকলেই তাঁকে ত্যাগ করেন। পাঁচ বছর পর দেখা গেল, যাঁরা আমাকে ত্যাগ করেছিলেন, তাঁদের ৯৫ শতাংশই ভোটে গোহারা হলেন। লোকসভা ভোটেও সেই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটবে বলে পাওয়ারের বিশ্বাস।

চণ্ডীগড়ের মেয়র নির্বাচনের প্রসঙ্গ তুলে বলেন, দেখলেন তো ক্ষমতা দখলের জন্য শাসকদল যে কোনও স্তরে নেমে যাচ্ছে। বিরোধীদের কোণঠাসা করার চক্রান্ত চালিয়ে যাচ্ছে। আসলে ওরা অস্তিত্ব সংকটে ভুগছে, হারার ভয় পাচ্ছে, বলেন পাওয়ার।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ