কলকাতা 

মন্ত্রিত্ব হারানোর একদিন পরেই জামিনের জন্য আবেদন করলেন জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : ইডির হাতে গ্রেফতার হওয়ার ১১৩ দিন পর জামিনের জন্য আবেদন করলেন বনমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক।শনিবার কলকাতার নগর দায়রা আদালতে জামিন চেয়ে আবেদন করেন জ্যোতিপ্রিয়। জামিনের সপক্ষে তিনি দু’টি যুক্তি দেখিয়েছেন। প্রথমত, নিজের অসুস্থতার কথা আদালতে জানিয়েছেন তিনি। সেই প্রেক্ষিতে জামিন চেয়েছেন। দ্বিতীয়ত, রেশন মামলায় নিজের যোগ অস্বীকার করেছেন বালু। জানিয়েছেন, এই ‘দুর্নীতি’র সঙ্গে তিনি জড়িত নন। তাই তাঁকে জামিন দেওয়া হোক। আগামী ২০ ফেব্রুয়ারি এই মামলার পরবর্তী শুনানি হবে।

গত ২৭ অক্টোবর ভোর পৌনে ৩টে নাগাদ জ্যোতিপ্রিয়কে গ্রেফতার করেছিল ইডি। তার পর তাঁকে আদালতে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। প্রথমে অসুস্থ হয়ে পড়েন তৎকালীন মন্ত্রী। হাসপাতালে কিছু দিন থাকতে হয় তাঁকে। সেখান থেকে সুস্থ হয়ে জেলে যান। তার পর থেকে জেল হেফাজতেই রয়েছেন বালু। একাধিক বার তাঁকে আদালতে হাজির করানো হয়েছিল। এক বারের জন্যেও জামিনের আবেদন জানাননি তিনি।

Advertisement

শুক্রবার জানা যায়, জ্যোতিপ্রিয়কে বনমন্ত্রী এবং শিল্পোদ্যোগ মন্ত্রীর পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। রাজভবনের তরফে একটি বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, জ্যোতিপ্রিয়ের বদলে বিরবাহা হাঁসদা এবং পার্থ ভৌমিক ওই দুই দফতর সামলাবেন। গ্রেফতার হওয়ার সাড়ে তিন মাস পরে দফতর খোয়ালেন জ্যোতিপ্রিয়।

জ্যোতিপ্রিয়ের বিরুদ্ধে রেশন ‘দুর্নীতি’র টাকা নয়ছয়ের অভিযোগ তুলেছে ইডি। এই মামলায় ধৃত বনগাঁ পুরসভার প্রাক্তন চেয়ারম্যান শঙ্কর আঢ্যের সঙ্গে তাঁর ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ ছিল বলেও দাবি করেছে তারা। অভিযোগ, শঙ্কর ২০ হাজার কোটি টাকা বিদেশে লেনদেন করেছেন। যার মধ্যে অন্তত ৯ থেকে ১০ হাজার কোটি টাকা জ্যোতিপ্রিয়ের।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ