কলকাতা 

উত্তরপত্র মূল্যায়ন নিয়ে মাদ্রাসা পর্ষদের কড়া নির্দেশ

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মতিয়ার রহমান : পশ্চিমবঙ্গ মাদ্রাসা শিক্ষা পর্ষদের মৌলানা আবুল কালাম আজাদ ভবনে ৯ই ফেব্রুয়ারি ২০২৪ শুক্রবার বেলা ১১ টায় হাই মাদ্রাসা, আলিম ও ফাজিল পরীক্ষা পরবর্তী ছাত্র-ছাত্রীদের উত্তরপত্র মূল্যায়ন সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে বিভিন্ন জেলা থেকে আগত মাদ্রাসা শিক্ষা পর্ষদ নিযুক্ত বাংলা, ইংরেজি, আরবি, ইতিহাস ও ভৌতবিজ্ঞান বিষয়ে এইচ ই অর্থাৎ প্রধান পরীক্ষকদের নিয়ে একটি গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয় । মাদ্রাসা শিক্ষা পর্ষদের সভাপতি ডঃ আবু তাহের কামরুদ্দীন মহাশয় সভায় উপস্থিত থেকে বিগত বছরে অর্থাৎ ২০২৩ সালে সকল এইচ ই অর্থাৎ প্রধান পরীক্ষক যারা সজাগ ও সচেতন হয়ে এবং স্বচ্ছ মানসিকতা সাথে

বহু শিক্ষক-শিক্ষিকাদের নিয়ে ছাত্রছাত্রীদের উত্তরপত্র মূল্যায়নের কাজটি দক্ষতা ও সুচারুভাবে করিয়ে নিয়ে মাদ্রাসা শিক্ষা পর্ষদকে সাফল্য এনে দিয়েছেন সেই জন্য প্রথমে সভায় উপস্থিত সকল এইচ ই অর্থাৎ প্রধান পরীক্ষক এবং সেই সাথেএক্সামিনার ও স্ক্রুটিনারদের কুর্নিশ জানায়। এরপর সভাপতি তার বক্তব্যে বলেন ছাত্র-ছাত্রীদের উত্তরপত্র যাতে যথাযথভাবে মূল্যায়ন হয় সেই জন্য সকল প্রধান পরীক্ষকদের হাতে নির্দেশাবলী তুলে দেওয়া হয়েছে। হেড এক্সামিনাররা অবশ্যই পর্ষদের নির্দেশমতো তাদের অধীন পর্ষদ নির্ধারিত শিক্ষক-শিক্ষিকা অর্থাৎ যারা

Advertisement

ছাত্রছাত্রীদের উত্তরপত্র মূল্যায়ন করবেন তাদের নিয়ে মডেল উত্তরপত্র নিয়ে খাতা ডিস্টিটিউশন এর আগে আলোচনা করবেন যাতে সকলের মধ্যে একটি প্যারিটি অর্থাৎ সমতা থাকে। ধৈর্য ধরে এবং সচেতন ভাবে প্রত্যেকে উত্তরপত্র মূল্যায়নের কাজটি করবেন, বিশেষ করে বড় প্রশ্নের উত্তর দেখার সময় সম্ভাব্য সকল উত্তরগুলো সম্বন্ধে ওয়াকিবহাল থাকবেন। উত্তরপত্রে যাতে অযথা লাল কালির মার্কিন না হয় এবং প্রত্যেক উত্তরপত্রে যাতে অবশ্যই কেজিং থাকে সেই বিষয়টার উপর অবশ্যই নজর রাখতে হবে ।তিনি আরো বলেন কোন ছাত্র-ছাত্রী যদি নম্বর কম পেয়ে ফেল করে যায়, সেই খাতাগুলো হেড এক্সামিনাররা অবশ্যই আবার ভালোভাবে যাচাই করবেন। মানুষ মাত্রই ভুল হয়, কিন্তু একবার ভাবুন তো আপনার একটি ভুলের উপর যখন একটি ছাত্র ছাত্রীর ভবিষ্যৎ জীবন নির্ভরশীল তখন ছাত্র-ছাত্রীদের স্বার্থে কথা ভেবে কারো কোনো ভুলভ্রান্তি পর্ষদ মেনে নেবে না।

এদিন সভায় উপস্থিত ছিলেন মাদ্রাসা শিক্ষা পর্ষদের সচিব আব্দুল মান্নাফ আলী এবং ডেপুটি সেক্রেটারি শাবানা শামীম।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ