কলকাতা 

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নতুন প্রকল্প কর্মশ্রী, মে মাস থেকেই চালু হচ্ছে!

শেয়ার করুন

বাংলার জনরব ডেস্ক : কন্যাশ্রী, রূপশ্রী, যুবশ্রী, যোগ্যতাশ্রীর পর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নতুন প্রকল্প কর্মশ্রী আজ বৃহস্পতিবার বিধানসভার বাজেট অধিবেশনে ঘোষণা করা হলো। বিধানসভায় রাজ্য বাজেট পেশ করতে গিয়ে অর্থ প্রতিমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য এই ঘোষণা করেন। এটা আসলে কেন্দ্রের ১০০ দিনের কাজের প্রকল্পের পাল্টা প্রকল্প হিসাবে কর্মশ্রী চালু করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই প্রকল্পের আওতায় থাকবে জব কার্ড । এই জব কার্ড হোল্ডাররা বছরে ৫০ দিন কাজ পাবেন। চলতি বছরের মে মাস থেকে কার্যকর হবে এই নয়া প্রকল্প।

১০০ দিনের কাজের টাকা বকেয়া টাকা আটকে রেখেছে কেন্দ্র। এ নিয়ে বেশ কিছু দিন ধরেই আন্দোলনে পথে নেমেছে তৃণমূল। গত ২ অক্টোবর গান্ধীজয়ন্তীতে সাংসদদের নিয়ে রাজধানী দিল্লিতে গিয়ে বাংলার বকেয়ার দাবি জানিয়েছিলেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও একাধিক বার এই দাবিতে সরব হয়েছেন। কর্মসূচিও নিয়েছেন। তবুও বকেয়া আসেনি দিল্লি থেকে। এই প্রেক্ষিতে এ বার বাজেটে রাজ্যের নিজস্ব কর্মশ্রী প্রকল্পের কথা ঘোষণা হল।

Advertisement

নতুন ঘোষিত এই প্রকল্পে বছরে ৫০ দিন কাজের নিশ্চয়তা থাকবে। আগামী মে মাস থেকেই কার্যকর হয়ে যাবে এই প্রকল্প। শর্ত একটাই, জব কার্ড থাকতে হবে। একমাত্র তা হলেই কর্মশ্রী প্রকল্পের আওতায় আসা যাবে। পাশাপাশি, রাজ্য সরকারের তরফে জানানো হয়েছে, ১০০ দিনের কাজের যে ৩৭০০ কোটি টাকা মানুষের প্রাপ্য বা বকেয়া আছে, তা-ও মিটিয়ে দেবে রাজ্য সরকার।

আগামী ২১ ফেব্রুয়ারির মধ্যে সেই টাকা মিটিয়ে দেওয়া হবে বলে আগেই জানিয়ে দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু ঠিক কত টাকা মেটানো হবে তা তখনও জানানো হয়নি। বাজেটে জানিয়ে দেওয়া হল ৩৭০০ কোটি টাকা মেটাবে রাজ্যই।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ