দেশ 

থানার ভেতরেই বিধায়ক গুলি চালালো জোট সঙ্গী নেতাকে, আশঙ্কাজনক অবস্থায় ভর্তি হাসপাতালে

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : থানার ভিতরে আলোচনা চলাকালীন সময়ে শিবসেনা (শিন্ডে)-র এক নেতাকে গুলি করে খুনের চেষ্টার অভিযোগ উঠল মহারাষ্ট্রের এক বিজেপি বিধায়কের বিরুদ্ধে। শনিবার এই ঘটনায় গণপত গাইকড় নামে ওই বিধায়ককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ নিয়ে শোরগোল শুরু হয়েছে মহারাষ্ট্রের রাজনৈতিক মহলে।

পুলিশের একটি সূত্র জানাচ্ছে, ঘটনাটি ঘটেছে উল্লাসনগরের হিল লাইন থানার ভিতরে। সেখানে শিবসেনা (শিন্ডে) নেতা মহেশ গাইকড় এবং বিজেপি বিধায়ক গণপতের মধ্যে বচসা শুরু চলছিল। দুই রাজনৈতিক দলের নেতার মধ্যে মধ্যস্থতার চেষ্টা করেন ইনস্পেক্টর অনিল জগতপ। কিন্তু তার মধ্যেই আচমকা বন্দুক বার করেন বিজেপি বিধায়ক। কিছু বুঝে ওঠার আগে শিন্ডে নেতার উপর গুলি চালিয়ে দেন তিনি। গুলি চলে গাইকড়ের এক সঙ্গীর উপরও। থানার ভিতরে ছ’টি গুলি করা হয়। মোট পাঁচ রাউন্ড গুলি লাগে শিন্ডে নেতার শরীরের বিভিন্ন অংশে। ওই নেতা এবং তাঁর সঙ্গীকে তড়ঘড়ি উদ্ধার করে ঠাণের একটি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে। তাঁদের দু’জনের শারীরিক পরিস্থিতিই আশঙ্কাজনক বলে খবর।

Advertisement

ওই ঘটনা নিয়ে ডিসিপি সুধাকর পাথারে বলেন, ‘‘মহেশ এবং গণপতের মধ্যে কিছু বিষয় নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়েছিল। দু’জনেই থানায় অভিযোগ জানাতে এসেছিলেন। কথাবার্তা চলছিল। তার মধ্যে গনপত গাইকড় মহেশ গাইকড় এবং আরও এক জনের দিকে গুলি চালিয়ে দেন। দু’জনেই গুরুতর জখম হয়েছেন। তদন্ত চলছে।’’ পুলিশ জানিয়েছে, ইতিমধ্যে ওই ঘটনায় বিজেপি বিধায়ক-সহ মোট তিন জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

এই ঘটনায় শিবসেনা কটাক্ষ করেছে শিন্ডে শিবির এবং বিজেপিকে। অন্য দিকে, কংগ্রেসের অভিযোগ, অভিযুক্ত বিজেপি বিধায়ক মহারাষ্ট্রের উপমুখ্যমন্ত্রী তথা বিজেপি নেতা দেবেন্দ্র ফড়ণবীসের ঘনিষ্ঠ। উল্লেখ্য, মহারাষ্ট্রে এখন জোট সরকার চালাচ্ছে শিবসেনা (শিন্ডে, বিজেপি এবং এনসিপি (অজিত)।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ