জেলা 

মাদ্রাসার পরীক্ষার্থীদের শুভেচ্ছা জানাতে ফুল,কলম,পাণীয় নিয়ে বসিরহাটের কেন্দ্রে বোর্ড সদস্য ফারহাদ

শেয়ার করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক,বসিরহাট : বৃহস্পতিবার রাজ্যজুড়ে শুরু হওয়া শিক্ষার্থীদের জীবনের প্রথম বড়ো পরীক্ষা নির্বিঘ্নে শেষ হলো। পশ্চিমবঙ্গ সরকারের মুখ্যমন্ত্রী শ্রীমতী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অধিনস্ত সংখ্যালঘু বিষয়ক ও মাদ্রাসা শিক্ষা উন্নয়ন দপ্তরের ব্যবস্থাপনায়, পশ্চিমবঙ্গ মাদ্রাসা শিক্ষা পর্ষদের তত্ত্বাবোধনে হাই মাদ্রাসা,আলিম, ফাজিল পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে প্রশাসনের কোনরকমের খামতি ছিল না। পরীক্ষা পরবর্তী শিক্ষার্থীরা খুশি প্রশ্নপত্র নিয়ে। উল্লেখ্য পঃবঃ মাদ্রাসা শিক্ষা পর্ষদের সভাপতি ডঃ সেখ আবু তাহের কামরুদ্দীন সহ বোর্ডের কর্তাব্যক্তিরা অত্যন্ত দায়িত্বের সঙ্গে কর্মপদ্ধতি অবলম্বন করে পরীক্ষা ব্যবস্থা সফল করে তুলেছে।

বৃহস্পতিবার উঃ চব্বিশ পরগনা জেলার বসিরহাট এলাকার কোদালিয়া হাই মাদ্রাসা ও কাদেরিয়া হাই মাদ্রাসায় উপস্থিত হয়ে ছাত্রছাত্রীদের হাতে গোলাপ ফুল, জলের বোতল,কলম সহ শুকনো খাবার তুলে দিতে দেখা যায় মাদ্রাসা শিক্ষা পর্ষদের অন্যতম সিনিয়র সদস্য একেএম ফারহাদকে।

Advertisement

সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে তিনি জানান যেভাবে রাজ্য সরকারের মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী শ্রীমতি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে ও সংখ্যালঘু বিষয়ক ও মাদ্রাসা শিক্ষা দপ্তরের তদারকিতে পরীক্ষা ব্যবস্থা পরিচালিত হচ্ছে তা অত্যন্ত প্রশংসনীয়।

মাদ্রাসা শিক্ষা পর্ষদের সভাপতি, সচিব, উপসচিব সহ অন্যান্য আধিকারিক বৃন্দ ও পুলিশ প্রশাসনের সহযোগিতায় সুন্দর ভাবে পরীক্ষা সম্পন্ন হলো। পাশাপাশি অভিভাবক অভিভাবকদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ পর্ব ও তাদের বসার ব্যবস্থা, বিষয়ে খোঁজখবর করা হয় বলে জানান একেএম ফারহাদ। ছাত্রছাত্রীবৃন্দের শুভেচ্ছা বিনিময় পর্বে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট সমাজকর্মী সাহানুর মন্ডল,মাদ্রাসার পরিচালন সমিতির সভাপতি শ্রী ভুপাল সর্দার, সম্পাদক আব্দুল হামিদ গাজী, প্রধান শিক্ষক মোঃ জাকির হোসেন, নিমদাড়িয়া কোদালিয়া পঞ্চায়েত সদস্য আসরাফুজ্জামান বুলবুল, মদ্রাসার সিনিয়র শিক্ষক কাওসার হাসান প্রমুখ।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ