কলকাতা 

রাজ্যের কৃতী ছাত্র-ছাত্রীদের স্টেম ও আমানত স্কলারশিপ বিতরণ আমানত ফাউন্ডেশনের

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বিশেষ প্রতিনিধি: আমানত ফাউন্ডেশন ট্রাস্ট -এর উদ্যোগে ২৮ জানুয়ারী ২০২৪, রবিবার সকাল ১০টা থেকে পশ্চিমবঙ্গ, বিহার ও কর্ণাটক রাজ্যের কৃতী ছাত্র-ছাত্রীদের স্টেম ও আমানত স্কলারশিপ বিতরণ আয়োজন করা হয় আলিয়া ইউনিভার্সিটির পার্কসার্কাস ক্যাম্পাসের সেমিনার হলে ।

প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন তাজ এণ্ড জাকির সৈয়দ ফ্যামিলি চ্যারিটেবল ফাউন্ডেশনের ফাউন্ডার জনাব তাজ সৈয়দ সাহেব ও সদস্য জনাব ক্যালেব ইব্রাহিম সাহেব।কোলকাতার নিট এণ্ড ফাউন্ডেশন সাবজেক্ট ম্যাটার এক্সপার্ট তথা মেন্টর নিউটাউন ক্লাসেস, কেমিস্ট্রি অধ্যাপক জনাব আসিফ মমতাজ সাহেব, কোঅপারেটিভ সোসাইটির এক্স রেজিস্টারার জনাব নায়িমূর রহমান।এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন আমানত ফাউন্ডেশন ট্রাস্টের চেয়ারম্যান মুহাম্মাদ শাহ্‌ আলম ও সেক্রেটারি জালালউদ্দিন আহমেদ, খালিদ ফাজলুল্লাহ, এমআইএস কো-অর্ডিনেটর আরিফ নাসরুল্লাহ আঞ্জুম, প্রোজেক্ট কো- অর্ডিনেটর দেবরঞ্জন লাই ও ডিস্ট্রিক্ট কো- অর্ডিনেটর সাহিদ হোসেন সিদ্দিকী, নুর মাহবিশ, দুই শতাধিক মেধাবী কৃতি ছাত্রছাত্রী ও অভিভাবকগণ।

Advertisement

আলিয়া ইউনিভার্সিটির সেমিনার হলে আয়োজিত সমগ্র অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন আরিফ নাসরুল্লাহ আঞ্জুম। আলিয়ার বিশিষ্ট ছাত্র রাকিবুল ইসলাম মোল্লার কুরআন পাঠ ও বাঙলায় তরজমার পর সভা সূচিত হয়। মুহাম্মাদ শাহ্‌ আলম সাহেব ইসলামের ভিত্তি নিয়ে আলোচনা করেন ও কিভাবে আল্লাহ্‌র হক আদায় করতে হবে তা ব্যাখ্যা করেন । তিনি স্কলারশিপ বিতরণের উদ্দেশ্য ব্যাখ্যা করেন। তিনি আরও বলেন, রাজ্যের কৃতী ছাত্রছাত্রীরা যাতে উচ্চ শিক্ষা গ্রহণ করতে পারে, তার জন্য স্কলারশিপ প্রদান করা, এর মাধ্যমে বহু পড়ুয়ারা উপকৃত হচ্ছে ও শিক্ষার মান উন্নয়ন হচ্ছে। তাজ সৈয়দ সাহেব স্টেম স্কলারশিপ প্রদানের উদ্দেশ্য ব্যাখ্যা করেন। সব শ্রেণীর মানুষের মধ্যে শিক্ষা প্রসারের মাধ্যমে সমাজ উন্নয়নের কথা বলেন। তাঁর কথায় শিক্ষার কোন বয়স নেই। সবার জন্য শিক্ষা দরকার। শিক্ষা শুধু নম্বরের ভিত্তিতে অথবা ডিগ্রির মাধ্যমে নয়। তিনি বলেন, মানুষ হওয়ার লক্ষ্যে প্রকৃত শিক্ষা অর্জন করে তা সমাজের জন্য কাজে লাগাতে হবে।

জনাব ক্যালেব ইব্রাহিম সাহেব কোন কোন রাজ্যে এই স্টেম স্কলারশিপ প্রদানের প্রয়োজন তা তার বক্তব্যের মাধ্যমে তুলে ধরেন। জনাব আসিফ মমতাজ সাহেব সাইন্স, টেকনোলজি, ইঞ্জিনিয়ারিং ও ম্যাথামেটিক্স নিয়ে কেন পড়া দরকার সেই ব্যাপারে আলোচনা করেন। জনাব নায়িমূর রহমান সাহেব ক্যরিয়ার গাইডেন্স নিয়ে আলোচনা করেন। এদিন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ৮০ জন কৃতী ছাত্রছাত্রীদের হাতে স্কলারশিপ চেক ও সার্টিফিকেট তুলে দেন বিশিষ্টজনেরা।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ