জেলা 

গাজোলের পীস অ্যাকাডেমিতে বাৎসরিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বিশেষ প্রতিনিধি :  ‘স্বাস্থ্যই সম্পদ’। স্বাস্থ্য ঠিক থাকলে যেকোনো কাজের ক্ষেত্রে মনোযোগী হওয়া যায়; পড়াশোনায় বসে মন।একজন শিক্ষার্থীর পড়াশোনার পাশাপাশি খেলাধুলা,শরীরচর্চার ভীষণ প্রয়োজন। আর এই উদ্দেশ্য বাস্তবায়নের পথে হেঁটে চলেছে মালদার বিশিষ্ট চিকিৎসক ডা: এম. রহমানের গাজোল ব্লকের ঢাকনাপাড়ায় গড়ে তোলা ‘পীস অ্যাকাডেমি’।

এখন সেই লক্ষ্য পূরণে সামগ্রিক ভাবেই এগিয়ে চলেছে আবাসিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি। ২০০৯ সালে পথ চলার মধ্যে দিয়ে এই প্রতিষ্ঠানের যাত্রা শুরু। প্রাথমিকভাবে যার উদ্দেশ্য ছিল সমাজের পিছিয়ে পড়া সমাজের ছেলে-মেয়েদের এগিয়ে যাওয়ার পাশাপাশি অত্র এলাকার উন্নয়ন ও সার্বিক বিকাশ ঘটানো। যেখানে পড়ার সুযোগ পায় বিভিন্ন সম্প্রদায়ের পাশাপাশি সর্বস্তরের ছাত্র-ছাত্রী। ফলে তৈরি হয়েছে ধর্ম ও বর্ণের উপরে সহাবাস্থান ও সম্প্রীতির এক মিলনক্ষেত্র।

Advertisement

আজ তারই তৈরিকৃত প্রতিষ্ঠান পীস অ্যাকাডেমিতে সাড়ম্বরে উদযাপিত হলো ২০২৪ শিক্ষাবর্ষের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠান। পীস অ্যাকাডেমির প্রাথমিক সহ ম্যাধ্যমিক উচ্চ মাধ্যমিক স্তরের কয়েক শত ছাত্র ছাত্রীদের অংশগ্রহণে ক্রীড়া অনুষ্ঠান হয়।

রবিবারের এই বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠানের শুভ সূচনা হয় পতাকা উত্তোলন এর মধ্য দিয়ে। এরপর জাতীয় সংগীত। তারপর বিভিন্ন ধরনের খেলা ধুলা শুরু হয়।

এদিনের অনুষ্ঠান প্রতিযোগিদের পুরষ্কার বিতরনের মাধ্যমে এবং পীস অ্যাকাডেমির সম্পাদক ডা: এম রহমানের সমাপ্তি ভাষনের মাধ্যমে সমাপ্তি হয়। আজকের এই বিশেষ দিনে যাদের উপস্থিতি পেয়ে পীস অ্যাকাডেমি নিজেকে ধন্য মনে করে তাদের মধ্যে উজ্জ্বল উপস্থিতি ছিলো -সুব্রত মাহন্ত, (অতিরিক্ত জেলাশাসক, দক্ষিণ দিনাজপুর), ননীগোপাল বর্মন (প্রধান শিক্ষক, গাজোল হাজী নাকু মোহাম্মদ হাই স্কুল ( উ:মা), পীস অ্যাকাডেমির সুপারিনটেনডেন্ট মুহাম্মাদ আশরাফুজ্জামান, সহ সম্পাদক ডা নুরুল ইসলাম মাজিদি সহ বিশিষ্ট ব্যক্তিগন।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ