কলকাতা 

এসপিকে জানানো সত্বেও ইডি আধিকারিকরা কেন আক্রান্ত? প্রেস বিবৃতি দিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ কেন্দ্রীয় এজেন্সির

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : সন্দেশখালিতে তৃণমূল নেতা শাহজাহান শেখের বাড়িতে তল্লাশি অভিযানে আক্রান্ত হয়েছিলেন ইডির আধিকারিকেরা। গত শুক্রবার সকালে সেই ঘটনার পর রাতে বনগাঁতেও প্রায়ই পরিস্থিতির মুখে পড়েছিলেন কেন্দ্রীয় সংস্থার তদন্তকারীরা। পুলিশ সুপারকে জানানোর পরেও কী ভাবে আধিকারিকদের উপর হামলা হল, তা নিয়ে পুলিশকে বিঁধে বিবৃতি জারি করল ইডি। পাশাপাশি সন্দেশখালির ঘটনাতেও পুলিশি পদক্ষেপ নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে তারা।

রেশন দুর্নীতি মামলার তদন্তে শাহজাহানের বাড়িতে তল্লাশি করতে গিয়ে গ্রামবাসীদের আক্রমণের মুখে পড়েছিলেন ইডি আধিকারিকেরা। সেই ঘটনায় তিন আধিকারিক জখমও হয়েছেন।

Advertisement

বনগাঁ ও সন্দেশখালির ঘটনার পর থেকেই একাধিক প্রশ্নের মুখে পড়েছে রাজ্য পুলিশ। সোমবার প্রেস বিবৃতিতে ইডি দাবি করেছে, শুক্রবার সকাল ৮টা ৪৬ মিনিটে ইমেল মারফত বনগাঁর পুলিশকে তল্লাশি অভিযানের ব্যাপারে জানানো হয়েছিল। এর পর বিকেল ৪টে নাগাদ পুলিশ সুপারের সঙ্গে ফোনেও যোগাযোগ করা হয়। ইডি আধিকারিকদের জন্য নিরাপত্তা চাওয়া হয় তাঁদের কাছে। কিন্তু তার পরেও যে জায়গায় তল্লাশি চলছিল, রাত সাড়ে ১১টা নাগাদ সেখানে বড় জমায়েত হয় এবং পরে ইডি ও কেন্দ্রীয় বাহিনীর উপর হামলার ঘটনা ঘটে। ইডি জানিয়েছে, ওই ঘটনায় কোনও ইডি আধিকারিক আক্রান্ত হননি। কেন্দ্রীয় সংস্থার গাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বনগাঁ থানায় ওই ঘটনার প্রেক্ষিতে অভিযোগও দায়ের করা হয়েছিল। কিন্তু এফআইআরের প্রতিলিপি তারা এখনও হাতে পায়নি। সন্দেশখালিকাণ্ডেও ন্যাজাট থানায় যে এফআইআর দায়ের হয়েছিল, তার প্রতিলিপিও হাতে আসেনি বলে বিবৃতিতে দাবি করেছে ইডি।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ