দেশ 

ভারত জড়ো যাত্রার পর রাহুল গান্ধী শুরু করছেন ‘ভারত ন্যায় যাত্রা’ কতটা প্রভাব ফেলবে জনমানসে এই যাত্রা?

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : আগামী ১৪ শে জানুয়ারি থেকে কংগ্রেস নেতার রাহুল গান্ধী শুরু করছেন ‘ভারত ন্যায় যাত্রা’। মূলত ভারতের পূর্ব প্রান্ত থেকে শুরু হয়ে এই যাত্রা শেষ হবে পশ্চিম প্রান্ত মুম্বাই শহরে গিয়ে। ১৪ই জানুয়ারি থেকে যাত্রা শেষ হবে কুড়ি মার্চ 65 দিনের এই যাত্রায় রাহুল গান্ধী ৬২০০ কিঃমি পথ যাত্রা করবেন।কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক কে সি বেণুগোপাল একথা জানিয়েছেন।

তিনি আরও জানান, ৬৫ দিনের এই যাত্রায় রাহুল মোট ৬ হাজার ২০০ কিমি পথ পেরবেন। যার মধ্যে পড়বে ১৪টি রাজ্য ও ৮৫টি জেলা। এবার রাহুল মণিপুুর, নাগাল্যান্ড, অসম, মেঘালয়, বাংলা, বিহার, ঝাড়খণ্ড, ওড়িশা, ছত্তিশগড়, উত্তরপ্রদেশ, মধ্যপ্রদেশ, রাজস্থান, গুজরাট ও মহারাষ্ট্রের ভিতর দিয়ে যাবেন । বেণুগোপালের কথায়, ”এই যাত্রায় রাহুল যুব সম্প্রদায়, মহিলা ও প্রান্তিক মানুষদের সঙ্গে মূলত কথাবার্তা বলবেন।”

Advertisement

তবে ‘ভারত জোড়ো যাত্রা’র সঙ্গে এই যাত্রার একটা তফাত রয়েছে। এবারের যাত্রা পায়ে হেঁটে নয়, মূলত বাসেই হবে। উল্লেখ্য, ২০২২ সালের ৬ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হওয়া ‘ভারত জোড়ো যাত্রা’য় ১৫০ দিনে সাড়ে ৪ হাজার কিমি পথ হেঁটেছিলেন রাহুল। সদ্য সমাপ্ত বিধানসভা নির্বাচনে তিন রাজ্যের শোচনীয়ভাবে পরাজয়ের পর কংগ্রেস দলকে রাহুলের এই যাত্রা কোন মাইলেজ দেয় কিনা সেটাই এখন দেখার। কারণ লোকসভা নির্বাচনের মুখে এই যাত্রা কতটা সাধারন মানুষের মধ্যে প্রভাব ফেলবে তা নিয়ে ইতিমধ্যে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

২২ জানুয়ারি রাম মন্দির উদ্বোধনের পর সমগ্র দেশ জুড়ে যে হিন্দুত্বের স্লোগান উঠবে তাকে সামলে উঠে রাহুল গান্ধীর এই যাত্রা কতটা সফল হতে পারে তা নিয়ে যথেষ্ট সন্দেহ রয়েছে।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ