জেলা 

ভোট পরবর্তী হিংসায় সিপিএম কর্মী খুনে ১২ জন তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীকে যাবজ্জীবন সাজা শোনালো রামপুরহাট আদালত

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : ২০১৩ এর পঞ্চায়েত নির্বাচনে পর বীরভূমের রামপুরহাটে এক সিপিএম কর্মীকে পিটিয়ে খুন করার অপরাধে আজ শুক্রবার রামপুরহাট আদালত ১২ জন তৃণমূল কর্মী কে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে। জানা গেছে ২০১৩ সালে পঞ্চায়েত নির্বাচনের দিন ছিল ২৩ শে জুলাই ঠিক তার পরের দিন ২৪ শে জুলাই বীরভূমের রামপুরহাট থানার সইপুর গ্রামের হুমায়ূন মীর নামে এক যুবককে খুন করা হয়। সেই মামলায় ১৪ জন তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীকে অভিযুক্ত করে মামলা দায়ের করা হয়েছিল। মামলা চলাকালীন সময় দুজন তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীর মৃত্যু হয় ।বাকি ১২ জনের বিরুদ্ধে আজ সাজা শোনালো রামপুরহাট আদালত।রামপুরহাট মহকুমা আদালতের অতিরিক্ত জেলা দায়রা বিচারক গুরুদাস বিশ্বাস এই সাজা দেন।

অভিযোগ ছিল, ২০১৩ সালের গ্রাম পঞ্চায়েত নির্বাচনের পর দিন ২৩ জুলাই, বীরভূমের রামপুরহাট থানার সইপুর গ্রামের বাসিন্দা সিপিআইএম কর্মী ২৮ বছর বয়সী হুমায়ূন মীরকে খুন করা হয়। তাঁর উপর চড়াও হয়ে তাঁকে বাঁশ, লাঠি সহ বিভিন্ন জিনিস দিয়ে এলোপাথাড়ি মারধর করা হয়। তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ২৪ জুলাই বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালেই তাঁর মৃত্যু হয়। এই ঘটনার পর সেদিনই রামপুরহাট থানায় ১৪ জনের নামে দাদাকে খুনের অভিযোগ দায়ের করেন মৃতের বোন জেসমীনা খাতুন।

Advertisement

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ