দেশ 

ইন্ডিয়া জোটের বৈঠকে আমন্ত্রণ পাননি মমতা!

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের ফল প্রকাশিত হয়েছে দেখা যাচ্ছে কংগ্রেস মাত্র একটি রাজ্যে ক্ষমতায় এসেছে। এরপরেই প্রথম ধাক্কাটা এলো ইন্ডিয়া জোটের অন্যতম প্রধান শরিক মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছ থেকে। যদিও আগামী ৬ ই ডিসেম্বর নয়া দিল্লিতে ইন্ডিয়া জোটের বৈঠক হওয়ার কথা ছিল অনেক আগে থেকেই। গতকাল বিধানসভা নির্বাচনের ফল স্পষ্ট হতেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় গা ছাড়া দিতে শুরু করেছে বলে কংগ্রেসের একটা মহলের অভিযোগ।

এদিকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়ে দিয়েছেন আগামী বুধবার ৬ ডিসেম্বর নয়া দিল্লিতে ইন্ডিয়া জোটের যে বৈঠক অনুষ্ঠিত হচ্ছে সে সম্পর্কে তাকে জানানো হয়নি। তাই তিনি ওই বৈঠকে যোগ দিতে পারবেন না কারণ তাঁর পূর্বনির্ধারিত কিছু কর্মসূচি রয়েছে। আগামী সাতই ডিসেম্বর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাইপো আবেশ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাগদান অনুষ্ঠিত হবে দার্জিলিংয়ে। তাই আগামীকালই তিনি উত্তরবঙ্গ চলে যাবেন ইতিমধ্যেই উত্তরবঙ্গ চলে গেছেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এবং তৃণমূলের একাধিক প্রথম সারির নেতা ওই অনুষ্ঠানে যোগ দেয়ার জন্য উত্তরবঙ্গে যাবেন। ফলে ডিসেম্বরের ইন্ডিয়া জোটের বৈঠকে তৃণমূলের পক্ষ থেকে কেউ যায় কিনা সেটাই এখন প্রশ্নচিহ্ন হয়ে রয়েছে।

Advertisement

সোমবার ভিসি নিয়োগ নিয়ে আলোচনা করতে রাজভবনে গিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখান থেকে বেরিয়ে ইন্ডিয়া জোটের বৈঠকে আমন্ত্রণ না পাওয়া নিয়ে কার্যত ক্ষোভ প্রকাশ করেন তিনি। জানান, “আমার কাছে এই বিষয়ে কোনও তথ্য নেই। আমাকে ফোনেও কিছু জানানো হয়নি। তাছাড়া আমি তো উত্তরবঙ্গ চলে যাচ্ছি। ৬ তারিখ সন্ধেয় হয়তো পৌঁছব। ওখানে কয়েকদিন থাকব। কিন্তু যদি জানতাম, তাহলে অন্যরকম ভাবে প্রোগ্রাম সাজাতাম। এই মুহূর্তে আর কী করে কিছু বদলাব করব?”

বিধানসভা নির্বাচনে তিন রাজ্যে বিপুল ভোটে জয় বিজেপির। মধ্যপ্রদেশে ক্ষমতায় ফিরেছে বিজেপি। মোদি ম্যাজিকে রাজস্থান এবং ছত্তিশগড়ে কংগ্রেসকে উৎখাত করে ক্ষমতা দখল করেছে গেরুয়া শিবির। সান্ত্বনা হিসেবে তারা পেয়েছে তেলেঙ্গানা। আর সেই দিনই চব্বিশের লক্ষ্যে নিজেদের রোডম্যাপ তৈরি করতে বৈঠকের ডাক দেন কংগ্রেস সভাপতি মল্লিকার্জুন খাড়গে। কিন্তু এদিন সকালে দমদম বিমানবন্দরে সাংবাদিকদের মুখোমুখি তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলে দেন, ‘ইন্ডিয়া জোটের বৈঠক নিয়ে আমাদের কিছু জানানো হয়নি।’ অর্থাৎ আমন্ত্রণই পায়নি তৃণমূল। এবার একই কথা বললেন মমতা। সেই সঙ্গে বুঝিয়ে দিলেন, এখন আমন্ত্রণ পেলেও তাঁর পক্ষে যাওয়া সম্ভব নয়।

তবে ইন্ডিয়া জোটের যারা নেতৃত্ব দিচ্ছেন তাদের অভিমত হচ্ছে বিজেপি বিরুদ্ধে জোট করতে হলে উত্তর প্রদেশ, ঝাড়খন্ড, বিহার, মহারাষ্ট্র এবং অসমে জোট করাটা অতি আবশ্যক। সেই লক্ষ্যেই ইন্ডিয়া জোট এগিয়ে চলেছে। এক কথায় পশ্চিমবাংলার রাজনীতি অনুসারে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৃণমূল কংগ্রেস এই রাজ্যে যথেষ্ট শক্তিশালী এখানে জোটের প্রাসঙ্গিকতা নিয়ে আলোচনা খুব বেশি হবে না বলে রাজনৈতিক মহল মনে করছে। মূলত উত্তর প্রদেশ জোট হলে সেখানে যদি ২০ থেকে ২৫টা লোকসভা আসন বের করা সম্ভব হয় তাহলে আগামী দিনে ভালো লড়াই করা যেতে পারে বলে রাজনৈতিক মহল মনে করছে।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ