দেশ 

আখলাক হত্যার তদন্তকারী অফিসার ছিলেন বলেই কী বুলন্দ শহরে পুলিশ আধিকারিককে পরিকল্পিতভাবে খুন করা হয়েছে ?

শেয়ার করুন
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : পরিকল্পিতভাবে ওই পুলিশকর্মীকে হত্যা করা হয় বলে কোনো কোনো মহল অনুমান করছে। ২০১৫ সালে গোরক্ষার নামে আখলাখ খান নামে এক ব্যক্তিকে খুন করা হয়েছিল।  সেই খুনের  তদন্তকারী অফিসার ছিলেন বলে এই পুলিশ আধিকারিক । সোমবার বুলন্দশহরে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয় এই তদন্তকারী ইনস্পেক্টর সুবোধকুমার সিংকে। তিনি পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের জন্য মৃত্যুর আগে বাড়তি ফোর্স চেয়েও পাননি বলে অভিযোগ। ২০১৫-তে মহম্মদ আখলাখ খুনে তদন্তকারী অফিসার থাকায় তাঁকে পরিকল্পনা করেই খুন করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন মৃত পুলিশ অফিসারের পরিবারের সদস্যরা।

উত্তরপ্রদেশ পুলিশ জানিয়েছে, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৫ থেকে ৯ নভেম্বর ২০১৫-র মধ্যে মহম্মদ আখলাখ খুনের তদন্তকারী অফিসার ছিলেন তিনি। গোহত্যা এবং মাংস নিয়ে যাওয়ার অভিযোগে তাঁকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছিল বলে অভিযোগ। যে ঘটনা সারা দেশে আলোড়ন ফেলেছিল।

মহম্মদ আখলাখ খুনের তদন্ত করার পর তাঁকে দাদড়ি থেকে বারাণসীতে বদলি করে দেওয়া হয়েছিল। পরে তাঁকে মথুরার বৃন্দাবনে এসএইচও পদে উন্নীত করা হয়। বুলন্দশহরে পোস্টিং-এর আগে বৃন্দাবনে ছিলেন ওই অফিসার।

এদিকে উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ মৃতের পরিবারকে আর্থিক সাহায্য দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন। ইনস্পেক্টর সুবোধ কুমার সিং-এর স্ত্রীকে ৪০ লক্ষ টাকা আর তাঁর বাবা-মার জন্যয় ১০ লক্ষ টাকা দেওয়ার কথা জানিয়েছেন তিনি। এছাড়াও এক্ট্রাঅর্ডিনারি পেনশন এবং পরিবারের এক সদস্যকে চাকরি দেওয়ার কথাও জানিয়েছেন। এটাওয়ার তারগানা বাসিন্দা ইনস্পেক্টর সিং পুলিশে যোগ দিয়েছিলেন ১৯৯৮ সালে। বুলন্দশহরের সিয়ানা থানায় যোগ দেওয়ার আগে তিনি মিরাট, সাহারানপুর এবং মুজফফরনগর জেলায় কাজ করেছিলেন। স্ত্রী ছাড়াও দুই কিশোর পুত্র রয়েছে ইনস্পেক্টর সিং-এর।

 


শেয়ার করুন
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment