আন্তর্জাতিক 

International Space Station : আন্তর্জাতিক মহাকাশ কেন্দ্রের (ISS) মৃত্যু ঘটতে চলেছে ২০৩০ ! নাসার এই সিদ্ধান্তের নেপথ্যের কারণ?

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : নাসার স্পেস স্টেশন নাকি ভেঙে ফেলতে চলেছে নাসা কর্তৃপক্ষ । এজন্য ১০০ কোটি ডলার খরচ করা হবে বলে জানা গেছে । বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত খবরথেকে জানা যচ্ছে,আমেরিকা, রাশিয়া, জাপান, কানাডা এবং ইউরোপের মহাকাশ সংস্থার সম্মিলিত প্রয়াসে গড়ে উঠেছিল আন্তর্জাতিক মহাকাশকেন্দ্র (আইএসএস)। ২৫ বছর ধরে কক্ষপথে (লোয়ার আর্থ অরবিট) রয়েছে আইএসএস। শীঘ্রই স্পেস স্টেশনকে কক্ষপথচ্যুত করার পরিকল্পনা করেছে নাসা।

নাসা আনুষ্ঠানিক ভাবে এখনো ঘোষণা না করলেও মনে করা হচ্ছে, ২০৩০ সালে আইএসএসের ‘মৃত্যু’ঘটতে চলেছে। নাসার পাশাপাশি ইউরোপিয়ান স্পেস এজেন্সি (ইউএসএ) এবং কানাডিয়ান স্পেস এজেন্সি (সিএসএ)-ও এ বিষয়ে তাদের সমর্থন জানিয়েছে।
রাশিয়ার মহাকাশ সংস্থা রসকসমস ২০২৮ সাল পর্যন্ত আইএসএস-এর সঙ্গে যুক্ত থাকবে বলে ঘোষণা করেছে।তবে ১০৯ মিটার দীর্ঘ স্পেস স্টেশন ধ্বংস করা খুব একটা সহজ নয়। তাই এই কাজ সম্পন্ন করতে অভিনব পন্থা নিচ্ছে নাসা।

আইএসএস-কে কক্ষপথচ্যুত করতে একটি মহাকাশযানের প্রয়োজন হবে বলে জানিয়েছে নাসা। সেই মহাকাশযানের সঙ্গে আইএসএসের সংযোগ স্থাপন করে তাকে কক্ষপথ থেকে সরানোর পরিকল্পনা নাসার।নাসা জানিয়েছে, আইএসএসের সঙ্গে মহাকাশযানটি এমন ভাবে জু়ড়তে হবে যেন কক্ষপথচ্যুত হলেও তা দক্ষিণ প্রশান্ত মহাসাগরে গিয়ে পড়ে।

স্পেস নিউজ সূত্রে খবর, মহাকাশযান তৈরি করতে খরচ হবে ১০০কোটি ডলার যা ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ৮ হাজার ৩৩৪ কোটি টাকা।নাসার তরফে জানানো হয়েছে আমেরিকার একটি সংস্থা মহাকাশযান হিসাবে ‘ইউএস ডিঅরবিট ভেহিকল’ (ইউএসডিভি) তৈরি করবে।বর্তমানে যে ধরনের মহাকাশযান ব্যবহার করা হয় সেগুলির থেকে ইউএসডিভি অনেকটাই আলাদা হবে বলে জানিয়েছে নাসা।

Advertisement

সৌজন্যে : ডিজিটাল আনন্দবাজার।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ