কলকাতা 

স্বাধীনতা-উত্তর কলকাতায় প্রথম মুসলিম মেয়র হিসাবে শপথ নিলেন ফিরহাদ হাকিম, মমতার ঐতিহাসিক সিদ্ধান্তে আবেগ-আপ্লূত বাঙালি মুসলিম সমাজ

শেয়ার করুন
  • 6
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বুলবুল চৌধুরি : তিনি পারেন মেলাতে । কারণ তিনি সব কিছুর উর্ধ্বে । বাংলার মানুষের আবেগকে সম্মান যদি কেউ স্বাধীন-উত্তর এই বাংলায় দিয়ে থাকেন তাহলে দুজন বাঙালি মুখ্যমন্ত্রীর নাম করতেই হবে । একজন সিদ্ধার্থ শংকর রায় । অন্যজন অবশ্যই বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় । আর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যা করতে পেরেছেন তা অন্য কেউ করতে আর পারবেন কিনা তা নিয়ে সন্দেহ আছে । তিনিই প্রথম কলকাতা কর্পোরেশনের ডেপুটি মেয়র করেছিলেন ফারজানা আলমকে , সেটাও ছিল বিভক্ত বাংলায় প্রথম মুসলিম ডেপুটি মেয়র । আর ৩ ডিসেম্বর ২০১৮ ; কলকাতার ইতিহাসে এক স্মরনীয় দিন হিসাবে চিহ্নিত হবে । এদিন বিভক্ত বাংলায় প্রথম কলকাতার মেয়র হিসাবে দায়িত্বভার গ্রহণ করলেন ফিরহাদ হাকিম । দক্ষিণ কলকাতার এক বর্ধিষ্ণু অভিজাত মুসলিম পরিবারে ফিরহাদ হাকিমের জন্ম । ১৯৪৭ সালে দেশভাগের পর চেতলা এলাকা থেকে অনেকেই অন্যত্র চলে গেলেও ফিরহাদ হাকিমের পরিবার জন্মভূমিকে ভালবেসে ওখানেই থেকে যান । ফিরহাদ হাকিম বড় হয়েছেন হিন্দু এবং মুসলিম দুই সংস্কৃতির ধারাকে বহন করে । তাই তিনি যেমন বাড়ির পাশের মসজিদটি রক্ষনাবেক্ষন ও দেখভাল করেন একইভাবে তিনি চেতলার বিখ্যাত দূর্গাপুজোর পরিচালনার দায়িত্বও সুচারুভাবে পালন করেন ।

এ হেন একজন সম্প্রীতির সাধককে কলকাতা কর্পোরেশনের মেয়র করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কার্যত বাংলার সংস্কৃতিরই মর্যাদা দিলেন । আর এ কারণেই বাংলার বাঙালি মুসলিম সমাজ যুগ যুগ ধরে মমতাকে স্মরণ করে যাবে । কারণ ফিরহাদ হাকিম মেয়র হিসাবে মুসলিমদের কতটা উন্নতি করবেন কিংবা তাদের স্বার্থে কিছু করতে পারবেন কিনা সেটা প্রশ্ন নয়, প্রশ্ন হল স্বীকৃতির । এ রাজ্যের মুসলিম ছেলেমেয়েরা প্রশাসন চালানোর ক্ষেত্রে যে যোগ্যতা ও দক্ষতা রয়েছে সেই স্বীকৃতি এতদিন কেউ দেয়নি । মমতা দিলেন । এখানেই তিনি অনন্য ।

যাইহোক আজ কলকাতা পুরসভার মেয়র নির্বাচিত হলেন ফিরহাদ হাকিম। ১২১ ভোট পেয়ে বিজেপির মীনাদেবী পুরোহিতকে হারালেন তিনি। মেয়র পদে ভোটাভুটিতে তাঁর জয় স্রেফ সময়ের অপেক্ষা ছিল। কারণ লড়াই ছিল ১২১ বনাম ৫-এর। সেই ফলের অন্যথা হল না। অর্থাৎ তৃণমূলের ১২১ কাউন্সিলরই তৃণমূলকে ভোট দিল। কোনও ভাঙনই ধরাতে পারল না বিজেপি।ফিরহাদ হাকিম পেলেন ১২১ ভোট। এমনকী ফিরহাদের অনুরোধ মেনে ভোট দিয়ে গেলেন প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়ও।


শেয়ার করুন
  • 6
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment