কলকাতা 

মুখ্যমন্ত্রীরও ভুল চিকিৎসা হয়েছিল, নবান্নে জানালেন মমতা

শেয়ার করুন

বাংলার জনরব ডেস্ক : মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভুল চিকিৎসা হয়েছিল যার জেরে সেপটিক পর্যন্ত হয়ে যায় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী। আর এই অভিযোগটি করেছেন খোদ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।অবশ্য স্পেন থেকে ফিরে এসএসকেএমের চিকিৎসকদের তত্ত্বাবধানেই চিকিৎসা চলছিল তাঁর।

৫৫ দিন পর রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যের সচিবালয়ে যান এবং সেখানে গিয়ে বিরোধীদের কটাক্ষের জবাব দেন। বিরোধীরা বেশ কয়েকদিন ধরেই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর অনুপস্থিতি ঘিরে নানা ধরনের অবান্তর প্রশ্ন করছিলেন। তাই তাঁদের উদ্দেশে মমতার প্রশ্ন, “কটা মুখ্যমন্ত্রী অফিসে যান? বাড়ি থেকে কাজ করেন। মুখ্যমন্ত্রী যেখানে যাবেন সেটাই অফিস। আমি ১৩দিন স্পেনে গিয়েছি। পুজোর ছুটি রয়েছে। ক্যাবিনেট মিটিংও ধরেছেন। পুজো উদ্বোধন ধরেছেন। বড়জোর বলতে পারেন ১২-১৩ দিন। তা না ৫৫ দিনের হিসাব।”

Advertisement

এর পরই সাংবাদিক বৈঠকে নিজের শারীরিক সমস্যা নিয়ে মুখ খোলেন মমতা। বলেন, “ভুল চিকিৎসার জন্য সেপটিকের মতো হয়ে গিয়েছিল। যেভাবে স্যালাইন দেওয়া হয়, সাতদিন সেভাবে চ্যানেল করা ছিল। বিছানা থেকে উঠতে পারিনি।” শারীরিক অসুস্থতা সত্ত্বেও কাজ করে গিয়েছেন। জানান, “প্রতিদিন অফিস থেকে কাগজ গিয়েছে।” যাতে কোনও অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে তাই পুজোর দিনগুলিতেও ভোর চারটে পর্যন্ত জেগে কাজ করেছেন বলেও জানান তিনি।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ