খেলা দেশ 

ভারতীয় স্পিন বোলারের জনক কিংবদন্তি ক্রিকেটার বিষাণ সিং বেদি চলে গেলেন

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : ৭৭ বছর বয়সে চলে গেলেন কিংবদন্তি ক্রিকেটার বিষাণ সিং বেদী।১৯৬৭ সাল থেকে ১৯৭৯ সালের মধ্যে ভারতের (India) হয়ে ৬৭টি টেস্ট ম্যাচ খেলে ২৬৬টি উইকেট নিয়েছেন তিনি। ১০টি ওয়ান ডে ম্যাচে সাতটি উইকেট নেওয়ারও কৃতিত্ব রয়েছে তাঁর দখলে। ভারতের প্রথম ওয়ান ডে ম্যাচ জয়ে বিষণ বেদীর গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ছিল। তবে ৭৭-এই থামল তাঁর জীবন। বিগত বেশ কয়েক বছর ধরেই শারীরিক ভাবে অসুস্থ ছিলেন বিষাণ সিং বেদী।

ঘরের মাঠে শক্তিশালী স্পিন আক্রমণ নিয়ে বিপক্ষকে শেষ করে দেওয়া। এরাপল্লি প্রসন্ন ও চন্দ্রশেখরের সঙ্গে সদ্য প্রয়াত বিষাণ সিং বেদীর নামও উচ্চারণ করা হত। ১৯৭৫ সালের বিশ্বকাপে পূর্ব আফ্রিকার বিরুদ্ধে ১২ ওভারে আটটি মেডেন-সহ মাত্র ৬ রান দিয়ে ১ উইকেট নিয়েছিলেন তিনি। তাঁর দাপটেই পূর্ব আফ্রিকাকে ১২০ রানে আটকাতে পেরেছিল ভারত।

Advertisement

১৯৭৭-৭৮ মরশুমে এই প্রবাদপ্রতিম বাঁহাতি স্পিনারের নেতৃত্বে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে সেই সময় টেস্ট সিরিজ হেরেছিল ভারত। ৫ ম্যাচের সিরিজ ২-৩ ফলে হারলেও, বিদেশের মাটিতে লড়াই করেছিলেন সুনীল গাভাসকর-মোহিন্দর অমরনাথরা। হলেও সেই প্রথম বিদেশের মাটিতে লড়াই করেছিল ভারত। সেই সফরে বব সিম্পসনের অজি দল প্রথম ও দ্বিতীয় টেস্টে জিতলেও, মেলবোর্ন এবং সিডনিতে জয়ের মুখ দেখেছিলেন গুন্ডাপ্পা বিশ্বনাথ-দিলীপ বেঙ্গসরকররা। যদিও অ্যাডিলেডে আয়োজিত শেষ টেস্টে ভারতকে হারের মুখ দেখতে হয়। সেটা না হলে প্রয়াত স্পিন লেজেন্ডের অধিনায়কত্বে ‘ডাউন আন্ডার’ সফরে প্রথম টেস্ট জয়ের মুখ দেখতে ভারতীয় দল।

১৯৪৬ সালের ২৫ সেপ্টেম্বর পাঞ্জাবের অমৃতসরে জন্ম হয় বেদীর। মাত্র ১৫ বছর বয়সে নর্দার্ন পঞ্জাবের হয়ে ঘরোয়া ক্রিকেট খেলা শুরু করেন তিনি। ১৯৬৮-৬৯ মরশুমে তিনি যোগ দেন দিল্লিতে। সেখানেই শেষ পর্যন্ত খেলেন। ১৯৭৮-৭৯ ও ১৯৭৯-৮০ মরশুমে দিল্লির অধিনায়কত্বও করেন তিনি। তাঁর নেতৃত্বে রঞ্জি ট্রফিতে দু’বার রানার্স হয় দিল্লি। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ৩৭০টি ম্যাচে ১৫৬০টি উইকেট নিয়েছেন বেদী।

২০২১ সালে এই কিংবদন্তি ক্রিকেটার হৃদরোগে আক্রান্ত হন। পরবর্তীতে বাইপাস সার্জারি হয়েছিল তারপর থেকে তিনি বাড়িতেই থাকতেন খুব একটা বাইরে বেরোতেন না। তার মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়ার সঙ্গে সঙ্গে বিশ্বকাপের মঞ্চ থেকে গভীর শোক ব্যক্ত করা হয়। দেশ-বিদেশের বহু ক্রিকেটার তার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন। তিনি শুধুমাত্র ভারতীয় ক্রিকেটার ছিলেন না এক কথায় তিনি ছিলেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার সবার অভিভাবক। ক্রিকেটের এই অভিভাবক আজ সোমবার ২৩ শে অক্টোবর ইহলোক ত্যাগ করে পরলোকে গমন করলেন।

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ