কলকাতা 

দুই স্বাধীনতা সংগ্রামী আইনি লড়াইয়ে জিতে হাইকোর্টের রায়ে ৩৮ বছর পর পেনশন পেতে চলেছেন

শেয়ার করুন
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক :  দেশের স্বাধীনতা সংগ্রামীকে পেনশনের অপেক্ষা করতে হল প্রায় চল্লিশ দশক । ভাবা যায় ! এই আমাদের গণতান্ত্রিক ভারতের প্রশাসনিক কাজের বহর । ওই দুই স্বাধীনতা  সংগ্রামীকে আবার হাইকোর্টে গিয়ে মামলা লড়ে ৩৭ বছর পর পেনশন পেতে হল । দীর্ঘ ৩৭ বছরের অপেক্ষার পর কলকাতা হাইকোর্ট। মঙ্গলবার প্রধান বিচারপতি দেবাশিস করগুপ্ত ও শম্পা সরকারের ডিভিশন বেঞ্চ বকেয়া সহ দুই স্বাধীনতা সংগ্রামীর সমস্ত পেনশনের টাকা তিন মাসের মধ্যে মিটিয়ে দেওয়ার এই নির্দেশ দিয়েছেন।

১৯৮০ সালে স্বাধীনতা সংগ্রামীদের পেনশন দেওয়ার একটি স্কিম চালু হয়। সেই স্কিম মোতাবেক আবেদন করেন একাদশী ভৌমিক ও তপন কর্মকার নামে দুই স্বাধীনতা সংগ্রামী। একাধিকবার আবেদন পরেও রাজ্য সরকার সেই আবেদন বাতিল করে দেয়। অবশেষে ২০১৫ সালে শেষ যে আবেদন বাতিল করা হয় তার বিরুদ্ধে কলকাতা হাইকোর্টে মামলা করেন একাদশী ভৌমিক। সেই সময় কলকাতা হাইকোর্ট একটি  হাই পাওয়ার কমিটি তৈরি করে ঘটনার তদন্ত করে দেখার নির্দেশ দেয়। হাইকোর্টের তৎকালীন প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ মূলত ইশুটা কী সেটা জানতে চায়। তখন সরকার পক্ষ থেকে বলা হয়, সরকারের কাছে রেকর্ড আছে। সেই রেকর্ড দাখিল করতে না পারলে কেউই পেনশন পাবেন না। কিন্ত আবেদনকারীরা জানান, সেরকম কোনও রেকর্ড নেই। স্কিম অনুযায়ী আমরা পেনশনের হকদার।

এই দ্বন্দ্বের মধ্যে হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ এবছরের ১৩ নভেম্বর রাজ্যকে কী রেকর্ড আছে তা কোর্টকে দেখাতে নির্দেশ দেয়। সেই মতো গতকাল হাইকোর্ট হাজির হয়েছিলেন পূর্ব মেদিনীপুরের পুলিশ সুপার। তিনি জানান, ১৯৩০ থেকে ৩৬ সালের কোনও ঠিকঠাক রেকর্ড তাঁরা খুঁজে পাননি। এরপরই বিচারপতিরা আগামী তিনমাসের মধ্যে সমস্ত বকেয়াসহ পেনশনের টাকা আবেদনকারীদের পরিবারের হাতে তুলে দেওয়ার নির্দেশ দেন।

মামলাকারীদের হয়ে সওয়ালকারী আইনজীবী রামদুলাল মান্না, স্বপন মল্লিক ও মনিকা সিনহা বলেন, “হাইকোর্টে মামলাটি প্রথম আসে ১৯৮৫সালে। এরপর ২০০২ সালে, ২০০৪ সালে, ২০১৫ সালে এবং শেষে ২০১৭ সালে। একাদশী ভৌমিকের স্ত্রী তুলসীরানি ভৌমিক এখন ৮৮ বছরের বৃদ্ধা। এবং তপন কর্মকারের স্ত্রী রেণুবালা কর্মকার এখন ৯৪ বছরের বৃদ্ধা। এই রায় শোনার পর তাঁরা খুবই খুশি।”

 

 


শেয়ার করুন
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment