কলকাতা 

ধুপগুড়ি বিধানসভার উপনির্বাচনের প্রচারে গিয়ে আদর্শ আচরণ বিধি ভঙ্গ করেছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এই মর্মে জাতীয় নির্বাচন কমিশনের কাছে অভিযোগ দায়ের বিজেপির

শেয়ার করুন

বাংলার জনরব ডেস্ক : গতকাল শনিবার জলপাইগুড়ির ধুপগুড়ি বিধানসভার উপনির্বাচনের প্রচারে গিয়ে আগামী ৩১শে ডিসেম্বরের মধ্যে ধুপগুড়ি কে মহাকুমার মর্যাদা দেওয়া হবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন তৃণমূলের সাংসদ তথা দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। একজন সাংসদ হিসেবে এই ধরনের প্রতিশ্রুতি নির্বাচনী আচরণবিধির লঙ্ঘন করে গতকালই অভিযোগ করেছিল বিরোধী দলগুলি। আজ প্রধান বিরোধীদল বিজেপির পক্ষ থেকে জাতীয় নির্বাচন কমিশনের কাছে আদর্শ আচরণ বিধি ভঙ্গ করেছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এই মর্মে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। বিজেপি নেতা শিশির বাজোরিয়া রবিবার নির্বাচন কমিশনে এই মর্মে চিঠি পাঠিয়েছেন। আবেদন, দ্রুত তাঁর বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করা হোক।

আগামী ৫ সেপ্টেম্বর, মঙ্গলবার ধূপগুড়িতে উপনির্বাচন। এখানকার বিজেপি (BJP) বিধায়ক বিষ্ণুপদ রায়ের মৃত্যুতে উপনির্বাচন হচ্ছে। উপনির্বাচনের প্রচারে শনিবার ধূপগুড়িতে গিয়েছিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। সভামঞ্চে তাঁর বক্তৃতার মাঝেই উপস্থিত জনতা সমস্বরে আবেদন জানান, ধূপগুড়িকে আলাদা মহকুমা করতে হবে। তা শুনে অভিষেক জানতে চান, সকলেই কি তাই চান? সকলেই জানান, আলাদা মহকুমাই তাঁদের একমাত্র দাবি। এরপরই অভিষেক বলেন, “আমি কথা দিয়ে কথা রাখি। আমি কথা রাখার ছেলে। আমি দাবি শুনে বলতে পারতাম, মহকুমা হবে, মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করব। কিন্তু আমি নিজের কাঁধে দায়িত্ব নিচ্ছি। এখন থেকে সবুজ আবির খেলতে শুরু করুন। ৩১ ডিসেম্বরের আগে ধূপগুড়ি আলাদা মহকুমা হবে। কথা দিয়ে গেলাম।”

Advertisement

কিন্তু প্রচারে গিয়ে এমন প্রতিশ্রুতি কীভাবে? এই প্রশ্ন তুলে বিজেপি নেতা শিশির বাজোরিয়া রাজ্য নির্বাচন কমিশনকে চিঠি পাঠালেন। রাজ্যের মুখ্য নির্বাচন কমিশনারকে (State Election Commission) লেখা চিঠিতে তিনি রাজ্য বিজেপির তরফে অভিযোগ তুলেছেন, এটা আদর্শ আচরণবিধি লঙ্ঘন। কমিশন এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিক। এ নিয়ে তৃণমূলের তরফে এখনও কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি।

 


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ