কলকাতা 

জ্যোতিরাদিত্য যতদিন কংগ্রেসে ছিলেন ততদিন দুর্নীতিগ্রস্ত ছিলেন, বিজেপিতে গেল অমনি সাধু হয়ে গেল: কানাইয়া কুমার

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বিশেষ প্রতিনিধি: ছাত্র পরিষদের সভা থেকে তীব্র ভাষায় বিজেপিকে আক্রমণ করলেন কানাইয়া কুমার। কংগ্রেস নেতা কানাইয়া কুমার আজ ২৮শে আগস্ট সোমবার ছাত্র পরিষদের প্রতিষ্ঠা দিবস উপলক্ষে কলকাতায় এসেছিলেন। ছাত্র পরিষদ আয়োজিত এই সভাটি হয়েছিল কলকাতার মহাজাতি সদনে। সেই সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে সরাসরি বিজেপিকে আক্রমণ করেন কংগ্রেস নেতা কানাইয়া কুমার। তিনি এদিন বিজেপির দুর্নীতি প্রসঙ্গে বলেন,‘‘জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া যত দিন কংগ্রেসে ছিলেন, তত দিন বিজেপি তাঁকে বলত দুর্নীতিগ্রস্ত। যে-ই তিনি বিজেপিতে গেলেন, অমনি সাধু হয়ে গেলেন। বাংলাতেও তাই! যে নেতাদের বিরুদ্ধে ইডি তদন্ত করছিল, তাঁরা বিজেপিতে যাওয়ার পর ইডি রাস্তা ভুলে গিয়েছে।’’ বস্তুত, সভার মাঝে এক বার ‘জয় বাংলা’ স্লোগানও শোনা যায় জেএনইউ-এর প্রাক্তনীর গলায়। যে স্লোগান নিয়ম করে দিয়ে থাকেন মমতা-অভিষেক। যা শুনে কংগ্রেসের নেতা-কর্মীদের একটি অংশ আবার বিভ্রান্ত হয়ে পড়েছেন। তবে তাঁরা রসিকতাবোধ হারাননি। বলেছেন, ‘‘কানহাইয়ার বক্তৃতা শুনতে শুনতে মনে হচ্ছিল অভিষেকের বক্তৃতার হিন্দি তর্জমা চলছে।’’

অবশ্য কংগ্রেস নেতা কানাইয়া কুমার জাতীয় রাজনীতির প্রেক্ষাপটে তৃণমূল সম্পর্কে খানিকটা নরম সুরে কথা বললেও প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরী তৃণমূলকে তীব্র ভাষায় আক্রমণ করেন। তিনি এদিন বলেন এই বাংলায় বিজেপি এবং তৃণমূলের বিরুদ্ধে কংগ্রেস লড়াই চালাবে। কংগ্রেস যে বাংলায় শেষ হয়ে যায়নি তার প্রমাণ মিলেছে সাগরদিঘিতে।

Advertisement

তবে কংগ্রেসের চিরাচরিত গোষ্ঠীকোন্দলের প্রথা থেকে এবারও ছাত্র পরিষদ মুক্ত হতে পারেনি। এদিন কংগ্রেসের মুখপাত্র আইনজীবী কৌস্তভ বাগচীকে নিয়ে খানিকটা অসন্তোষ এবং গন্ডগোল দেখা যায় সভা মঞ্চে। অবশ্য কৌস্তুভ বাগচী এদিন বলেন বাংলার কংগ্রেস কর্মীদের কাছে বিচার চাইবেন তিনি যেভাবে হেনস্তা হয়েছেন তার বিচার এই বাংলার কংগ্রেস কর্মীরা করবে।

 

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ