কলকাতা 

রাজ্যের ইমাম-মুয়াজ্জিনদের জন্য বিরাট ঘোষণা মমতার, খুশির হাওয়া বাঙালি মুসলিম সমাজে! লোকসভা নির্বাচনে ব্যাপক প্রভাব পড়ার সম্ভাবনা

শেয়ার করুন

বাংলার জনরব ডেস্ক : বাংলার জনরাব দাবি করেছিল ইমামদের বেতন কমপক্ষে দশ হাজার টাকা করা হোক মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সেই দাবির প্রতি মানবতা দিয়েছেন কিনা জানিনা। তবে তিনি মাত্র ৫০০ টাকা ভাতা বৃদ্ধি করেছেন। আসলে ইমামদের ভাতা বৃদ্ধি করার জন্য যে আর্থিক সংস্থান রাজ্য সরকারের থাকার দরকার ছিল কাজে নেই সে কথা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। তবে ইমাম ভাতা ৫০০ টাকা বৃদ্ধি করার ফলে রাজ্যজুড়ে ইমামদের মধ্যে খুশির হাওয়া দেখা দিয়েছে বলে জানা গেছে অন্যদিকে মুয়াজ্জিনদের মাসিক ভাতা বেড়ে হয়েছে দেড় হাজার টাকা এক্ষেত্রেও মাত্র ৫০০ টাকা ভাতা বৃদ্ধি করা হয়েছে।

 

২০১২ সালের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে দাঁড়িয়ে এই রাজ্যের ৩০ হাজার ইমামের জন্য আড়াই হাজার টাকা মাসিক ভাতা ঘোষণা করেছিলেন এবং কুড়ি হাজার মত দিনের জন্য এক হাজার টাকা মাসিক ভাতা ঘোষণা করেছিলেন। তারপর সময়ের বিচারে প্রায় এগারো বছর কেটে গেলেও ইমাম মোয়াজ্জিনদের ভাতা বাড়েনি এবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ভাতা বাড়ালেন ৫০০ টাকা করে।

Advertisement

ভাতা বৃদ্ধি নিয়ে বলতে গিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সোমবার বলেন, ‘‘আর্থিক প্রতিবন্ধকতার মধ্যে দিয়ে চলতে হচ্ছে। এক দিকে দিল্লি টাকা দিচ্ছে না। অন্য দিকে রাজ্যের টাকায় ১০০ দিনের কাজের মতো প্রকল্প চালাতে হচ্ছে। সেইসঙ্গে কন্যাশ্রী, যুবশ্রী, ছাত্রদের স্কলারশিপ-সহ অন্য সামাজিক প্রকল্পগুলি চলছে। তার মধ্যেও আমরা ভাতা বৃদ্ধির চেষ্টা করলাম।’’ ভাতা বৃদ্ধির ঘোষণা হতেই ইমাম-মোয়াজ্জেমদের করতালিতে ফেটে পড়ে নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়াম।

সামান্য এই ভাতা বৃদ্ধিতেই ইমামদের মধ্যে যে খুশির হাওয়া দেখা দিয়েছে তাতে মনে হয় আগামী দিনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই বাংলা থেকে কম করে 35টিরও বেশি লোকসভা আসন পেয়ে জয়লাভ করবে। তবে রাজনৈতিক মহল বলছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ইমামদের জন্য যে বিশেষ প্রকল্প ঘোষণা করার কথা বলেছিলেন সেগুলো এবারও তিনি ঘোষণা করলেন না। ইমামদের বাসস্থানের ব্যবস্থা করা তাদের ছেলেমেয়েদের পড়াশোনার ব্যবস্থা করা এসব কথা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একসময় বলেছিলেন কিন্তু নেতাজীর স্টেডিয়ামের সভায় সে কথা বললেন না তারপরেও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আগামী লোকসভা নির্বাচনে মুসলিমদের বিপুল সমর্থন নিয়ে এবং ইমামদের সমর্থন নিয়ে তিনি বিপুল ভোটের ব্যবধানে জয়লাভ করে প্রধানমন্ত্রী হয়ে যাবেন।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ