দেশ 

রাজ্যসভার বাদল অধিবেশন থেকে সাসপেন্ড তৃণমূল সাংসদ

শেয়ার করুন

বাংলার জনরব ডেস্ক: রাজ্যসভার পুরো অধিবেশন থেকে তৃনমূল সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েন (Derek O’Brien) সাসপেন্ড করা হয়েছে । জানা গিয়েছে, মণিপুর ইস্যুতে উপরাষ্ট্রপতি জগদীপ ধনকড়ের (Jagdeep Dhankhar) সঙ্গে তর্কাতর্কিতে জড়িয়ে পড়েন ডেরেক। তারপরেই বাদল অধিবেশন থেকে তাঁকে সাসপেন্ড করা হয়। মুলতুবি হয়ে যায় সংসদের দুই কক্ষের অধিবেশন।

মঙ্গলবার থেকেই সংসদে অনাস্থা প্রস্তাবের আলোচনা শুরু হবে। এদিন রাজ্যসভার অধিবেশন শুরু হতেই মণিপুর ইস্যুতে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে সভাকক্ষ। ডেরেকের বিরুদ্ধে প্রস্তাব পেশ করেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পীযূষ গোয়েল। তিনি বলেন, ধারাবাহিকভাবে রাজ্যসভার কার্যাবলিতে বাধা দিচ্ছেন তৃণমূল সাংসদ। চেয়ারম্যানের অবমাননা করে রাজ্যসভার শৃঙ্খলাভঙ্গ করছেন।

Advertisement

প্রস্তাব পেশের পরেই অসংসদীয় আচরণের কারণে বাদল অধিবেশন থেকে সাসপেন্ড করা হয় তৃণমূল সাংসদকে। অনাস্থা প্রস্তাবের আলোচনার আগেই ডেরেক ও ব্রায়েনকে সাসপেন্ড করা হয়। তারপর বেলা বারোটা পর্যন্ত মুলতুবি করে দেওয়া হয় অধিবেশন। একই সঙ্গে মুলতুবি হয় লোকসভাও।

সোমবারই রাজ্যসভার অধিবেশন চলাকালীন উপরাষ্ট্রপতি জগদীপ ধনকড়ের তিরস্কারের মুখে পড়েছিলেন ডেরেক। দিল্লি অর্ডিন্যান্স বিল নিয়ে আলোচনার সময়ে কেন্দ্র সরকারের বিরোধিতা করে নানা মন্তব্য করছিলেন তৃণমূল সাংসদ। তখনই ধনকড় বলেন, চলতি অধিবেশনে একাধিকবার তর্ক করেছেন ডেরেক। তাঁর আচরণকে নাটক বলেও কটাক্ষ করেন উপরাষ্ট্রপতি। পরের দিনই সাসপেন্ড হয়ে যান ডেরেক।

 

 


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ