কলকাতা 

দেশের পঞ্চায়েত ও পুরসভাগুলি সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠান , তাই তার গঠনতন্ত্রের পরিবর্তন রাজ্য কি করতে পারে ? : সরদার আমজাদ আলী

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বুলবুল চৌধুরি : কলকাতা পুর নিগমের মেয়র হঠাৎ পদত্যাগ করার পর রাজ্য সরকার বিধানসভায় একটা বিল নিয়ে পুরনিগমের মেয়র পদের নির্বাচন বিষয়ে সংশোধনী পাশ করেছে । আর এটা নিয়েই শুরু হয়েছে চাপান-উতোর । সিপিএম এই বিলকে সংবিধান বিরোধী বলছে । তারা এই বিলের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে মামলা করবে বলে জানিয়ে দিয়েছে । প্রাক্তন পুরমন্ত্রী অশোক ভট্টাচার্য এ প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন , এই বিল সংবিধান বিরোধী । এই বিল কি সত্যিই সংবিধান বিরোধী ? শাসক দলের পক্ষ দাবি করা হয়েছে এটা সম্পূর্ণ সংবিধান-সম্মত বিল । এ নিয়ে আমরা কথা বলেছিলাম বিশিষ্ট আইনজীবী প্রাক্তন সাংসদ সরদার আমজাদ আলীর সঙ্গে তিনি বলেন , প্রথম কথা হচ্ছে কলকাতা পুর নিগমের আইনে পরিস্কার বলা হয়েছে ,  কাউন্সিলার ছাড়া অন্য কেউ মেয়র হতে পারবে না । তাহলে মহানাগরিক পদত্যাগ করার পর তো সহ-মহানাগরিক আছেন । তাঁর নাম তো ইকবাল আহমেদ । তিনি তো কয়েক মাসের জন্য মেয়র হিসাবে কাজ করতে পারতেন । তিনি যোগ্য বলেই তো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁকে ডেপুটি মেয়র করেছেন । তাহলে কোনো সমস্যায় হত না ।

এছাড়াও পুরসভায় ১২২ জন তৃণমূল কংগ্রেসের কাউন্সিলার রয়েছেন তাঁদের মধ্যেও একজনকে মেয়র করা যেতে পারত । তা না করে তিনি পুর আইনে সংশোধনী এনে নতুন মেয়র হিসাবে ফিরহাদ হাকিমকে নিয়োগ করেছেন । তিনি অবশ্যই যোগ্য । কিন্ত এটা মনে রাখতে হবে রাজ্যের পঞ্চায়েত, পুরসভা ও পুরনিগমগুলি সবই সাংবিধানিক সংস্থা । এই সংস্থার গঠনতন্ত্র কীভাবে হবে তা সাংবিধানিকভাবে নির্দিষ্ট । আর সাংবিধানিক সংস্থার কোনো বিষয়ের সংশোধন করতে হলে তা একমাত্র সংসদের দুই কক্ষই করতে পারে । রাজ্য বিধানসভা কী এভাবে সাংবিধানিক সংস্থা গঠনতন্ত্রের পরিবর্তন পারে ? সেটাই এখন সবচেয়ে বড় প্রশ্ন হয়ে দেখা দিয়েছে ।

বর্ষীয়ান আইনজীবী সরদার আমজাদ আলী আরও বলেন, সংখ্যাগরিষ্ঠতার জোরে যেকোনো বিল বিধানসভায় পাশ করা যেতে পারে , কিন্ত সেই বিলকে রাজ্যপালকে অনুমোদন দিতে হবে এবং তা গেজেট নোটিফিকেশন করার পরই আইনে রূপান্তরিত হবে । তবে যেহেতু এটা সাংবিধানিক সংস্থার বিষয়ে সংশোধনী বিল সেক্ষেত্রে রাজ্যপাল হয়তো রাষ্ট্রপতির কাছে পাঠাতে পারেন। তাহলে কী ফিরহাদ হাকিম মেয়র হিসাবে ৩ ডিসেম্বর শপথ নিতে পারবেন না ? এই প্রশ্নের উত্তরে বর্ষীয়ান কংগ্রেস নেতা আমজাদ সাহেব বলেন, কে বলেছে ৩ তারিখে উনি শপথ নেবেন? এই বিল আইনে রূপান্তরিত না হওয়া পর্যন্ত উনি মেয়র পদে বসতে পারবেন না। আর সিপিএম দল ইতিমধ্যেই আদালতে যাবে বলে জানিয়ে দিয়েছে , আদালত যদি এই বিলের বিষয়ে কোনো স্থগিতাদেশ দেয় তাহলে পুরো বিষয়টি থমকে যাবে বলে আমজাদ সাহেব মনে করেন।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment