দেশ 

রাম-মন্দির নির্মাণের দিন খুব শীঘ্রই ঘোষণা করবে বিশ্ব-হিন্দু-পরিষদ , উত্তেজনা থাকলেও পুলিশের তৎপরতায় অশান্তি হয়নি , অযোধ্যা ইস্যুতে রাষ্ট্রপতির হস্তক্ষেপ দাবি মুসলিম সংগঠনের

শেয়ার করুন
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : অবিলম্বে রাম-মন্দির নির্মানের দাবিতে বিশ্ব-হিন্দু পরিষদ রবিবার অযোধ্যায় বিশাল সভা করে । কিন্ত হাইকোর্ট ও সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ মত আজ সভাস্থলে কয়েক হাজার পুলিশ মোতায়েন করা হয় । বিতর্কিত জমিতে প্রবেশ বন্ধ করে দেওয়া হয় । এদিকে রবিবার হাজার হাজার সমর্থকদের সামনে বিশ্বহিন্দু পরিষদের সহ-সভাপতি চম্পত রাই বলেন , তারা খুব শীঘ্রই রাম মন্দিরের নির্মানের দিন ঘোষনা করবে । আর সেদিনেই রাম মন্দির তৈরি করা হবে ।  পাশাপাশি  এদিন তিনি স্পষ্ট জানিয়ে দেন অযোধ্যার বিতর্কিত জমির পুরোটাই আমাদের চাই ।

আজকের সভাকে ঘিরে দেশ জুড়েই উত্তেজনা চরমে ছিল । কিন্ত এটা ঠিক যোগী প্রশাসন ঠান্ডা মাথায় এর মোকাবিলা করেছে । তবে শিবসেনা প্রধান উদ্ধব ঠাকরের সভা নিয়ে ভিএইচপি সহ-সভাপতি চম্পত রাই শিবসেনাকে একহাত নিয়ে বলেন, যারা উত্তর ভারত বাসীদের মহারাষ্ট্র থেকে মেরে তাড়িয়ে দিয়েছে তারা কি করে বুঝবে ভগবান রামের মাহাত্ম? প্রসঙ্গত, আজ অযোধ্যায় রাম মন্দির নির্মানের দাবি জানিয়ে জড়ো হয় শিবসেনা, ভিএইচপি এবং আরএসএস।

সুপ্রিম কোর্টে মামলা চলাকালীন সময়ে রাম-মন্দির নির্মাণ নিয়ে সংঘ পরিবারের আগ্রাসী আন্দোলনের দেশের সংখ্যালঘু মুসলিমদের মধ্যে আতংক ছড়িয়েছে । সংবাদ-মাধ্যমের খবর অনুযায়ী প্রায় চার হাজার মুসলিম অযোধ্যা সংলগ্ন এলাকা থেকে ভয়ে পালিয়ে গেছে ।

এদিকে অল ইন্ডিয়া মজলিশে মুসাওয়ারতের পক্ষ থেকে আজ রাষ্ট্রপতি কোবিন্দ চিঠি দিয়ে অযোধ্যা ইস্যুতে তাঁর হস্তক্ষেপ চাওয়া হয়েছে । চিঠিতে বলা হয়েছে বিশ্ব হিন্দু পরিষদ বেআইনি ভাবে অযোধ্যায় সভা করে উত্তেজনা সৃষ্টি করতে চাইছে । এই প্রেক্ষাপটে সাংবিধানিক প্রধান হিসাবে রাষ্ট্রপতি হস্তক্ষেপ প্রার্থনা করেছেন দেশের সবচেয়ে বড় মুসলিম সংগঠন মজলিশে মুসাওয়ারাত।

 


শেয়ার করুন
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment