জেলা 

পঞ্চায়েত ভোটের দিন কলকাতা পুলিশের কনস্টবলকে গণপিটুনি নদীয়ায়, ভিডিও ভাইরাল হতেই অস্বস্তিতে প্রশাসন

শেয়ার করুন

গত ৮ জুলাই পঞ্চায়েত নির্বাচনের দিন কলকাতা পুলিশের এক কনস্টেবল পঞ্চায়েত নির্বাচন করানোর জন্য নদীয়া জেলায় গিয়েছিলেন। সেখানে গিয়ে কোন পিটুনিতে গুরুতর আহত হয়ে কলকাতার এক বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। জানা গেছে পঞ্চায়েত নির্বাচনের দিনে নদীয়া জেলার গাংনাপুরে একটি বুথে ডিউটিরত অবস্থায় ছিলেন কলকাতা পুলিশের এক কনস্টেবল। ভোট চলাকালীন সময় বুথে অশান্তি দেখা দেয় সেই অশান্তি ও গন্ডগোলের মাঝে পড়ে কলকাতা পুলিশের কনস্টেবল কে বেধড়ক মারধর করে কিছু মানুষ বলে জানা গেছে। এই নিয়ে একটি ভিডিও সমাজ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

ওই ভিডিয়োয় দেখা গিয়েছে, দুই পুলিশকর্মীকে ঘিরে ধরেছেন গাংনাপুরের স্থানীয় বাসিন্দাদের একাংশ। তাঁদের মধ্যে এক পুলিশকর্মী স্থানীয় এক জনের বাড়িতে ঢুকে খাটের তলায় লুকিয়ে পড়েন। তিনি বেঁচে গেলেও হামলাকারীদের রোষের হাত থেকে রেহাই পাননি রাজু দাস নামে কলকাতা পুলিশের অপর কনস্টেবল। জনা তিরিশেক লোক তাঁকে ঘিরে ধরে বাঁশ, লাঠি এবং গাছের ডাল দিয়ে মারধর শুরু করে। তিনি আবেদন নিবেদন করলেও তাতে কর্ণপাত করেননি আক্রমণকারীরা। তাঁকে রাস্তায় ফেলে এলোপাথাড়ি বাঁশ দিয়ে পেটানো হয়। পরে তাঁকে গুরুতর জখম অবস্থায় উদ্ধার করা হয়।

Advertisement

কলকাতা পুলিশের ওই কনস্টেবল এখন কলকাতার এক বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি আছেন। এক কথায় তিনি গুরুতরভাবে অসুস্থ। পুলিশের উপর এই হামলা এটা প্রমাণ করছে রাজ্যের সাধারণ মানুষ শাসক এবং পুলিশ ওপর ক্ষুব্ধ হচ্ছে।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ