দেশ 

মহারাষ্ট্রের বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী একনাথ শিন্ডে সহ শিবসেনার দুটি গোষ্ঠীর বিধায়কদের সদস্যপদ কেন খারিজ করা হবে না নোটিশ দিয়ে জানতে চাইলেন স্পিকার!

শেয়ার করুন

বাংলার জনরব ডেস্ক: মহারাষ্ট্রের বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী একনাথ শিন্ডে পদত্যাগ করতে বলেছে বিজেপি বলে দাবি করেছিলেন আদিত্য ঠাকরে। এই ঘটনার ২৪ ঘণ্টা কাটতে না কাটতেই দেখা গেল মহারাষ্ট্র বিধানসভার স্পিকার শিবসেনা দলের ভেঙে যাওয়ার দুটি গোষ্ঠীকে তাদের বিধায়কদের পদ কেন খারিজ করা হবে না নোটিশ দিয়ে জানতে চেয়েছেন। এর ফলে মহারাষ্ট্রে রাজনীতিতে নাটকীয় যে পরিবর্তন হতে চলেছে তা নিয়ে কোন সন্দেহ নেই। এবার মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিতে পারেন শারদ পাওয়ারের ভাইপো অজিত পাওয়ার।এদিকে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ মত স্পিকার যদি শিবসেনার সব বিধায়কদের সদস্যপদ খারিজ করে দেন তাহলে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হবে একনাথ শিন্ডে।

মুখ্যমন্ত্রী একনাথ শিণ্ডে-সহ শিব সেনার শিণ্ডেগোষ্ঠীর ৪০ বিধায়ক এবং উদ্ধব ঠাকরে (Uddhav Thackaray) শিবিরের ১৪ বিধায়কের কাছে সদস্যপদ খারিজ নিয়ে শনিবার জবাব তলব করেছেন স্পিকার। বলা ভাল, হঠাতই শিব সেনার দুই গোষ্ঠীর বিধায়কদের সদস্যপদ খারিজ ইস্যুতে নড়েচড়ে বসেছেন তিনি। কেন তাঁদের বিধায়ক পদ খারিজ করা হবে না? শিব সেনার ৫৪ বিধায়কের কাছেই জবাব তলব করেছেন রাহুল নরভেকর। জানা গিয়েছে, জবাব সন্তোষজনক না হলে ৫৪ বিধায়কের সদস্যপদই খারিজ করে দিতে পারেন তিনি। সেক্ষেত্রে মুখ্যমন্ত্রীর পদ থেকে বিদায় নিতে হতে পারে একনাথ শিণ্ডেকে।

Advertisement

গত বছর জুলাইয়ে ভাঙন ধরেছিল বাল ঠাকরে প্রতিষ্ঠিত শিব সেনায় (Shiv Sena)। দলের সুপ্রিমো উদ্ধব ঠাকরের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ ঘোষণা করেন একনাথ শিণ্ডে। তাঁর সঙ্গে গিয়েছিলেন শিবসেনার ৩৯ জন বিধায়ক। বাকি ১৭ জন বিধায়ক দলের সুপ্রিমোর সঙ্গেই থেকে গিয়েছিলেন। দলত্যাগী বিধায়কদের সদস্যপদ খারিজের দাবি জানিয়ে মহারাষ্ট্র বিধানসভার স্পিকারকে চিঠি দিয়েছিল উদ্ধব শিবির। এর পাল্টা উদ্ধব গোষ্ঠীর সঙ্গে থাকা বিধায়কদের সদস্যপদ খারিজের অনুরোধ জানিয়ে স্পিকারকে চিঠি দিয়েছিল শিণ্ডে সেনাও।

সেই মামলা গড়িয়েছিল সুপ্রিম কোর্টে। তবে বিধায়কদের সদস্যপদ খারিজ হবে কি না, সেই সিদ্ধান্ত নেওয়ার ভার বিধানসভার স্পিকারের হাতেই ছেড়েছিল শীর্ষ আদালত। তার পরে দু’মাস কেটে গেলেও এ বিষয়ে কোনও পদক্ষেপ করেননি বিধানসভার স্পিকার। গত রবিবার অজিত পাওয়ারের (Ajit Pawar) নেতৃত্বে এনসিপির একটি গোষ্ঠী সরকারে যোগ দিতেই নড়েচড়ে বসেছেন তিনি।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ