কলকাতা 

তৃণমূল নেত্রীর স্বামীকে পিটিয়ে খুন মালদায়, অভিযোগের তীর কংগ্রেসের দিকে

শেয়ার করুন

বাংলার জনরব ডেস্ক : মনোনয়নপত্র পেশের পর স্কুটিনির দিন খুন হয়ে গেল তৃণমূলের এক প্রাক্তন পঞ্চায়েত প্রধানের স্বামী আপনাকে ঘটেছে মালদহ জেলার মোথাবাড়ি এলাকায়। শনিবার দুপুরে প্রাক্তন পঞ্চায়েত প্রধানের স্বামীকে পিটিয়ে খুনের অভিযোগ উঠেছে। খুনের প্রতিবাদে ৩৪ নং জাতীয় সড়কে দেহ ফেলে রাস্তা অবরোধ করেছেন তৃণমূল কর্মীরা। ঘটনাস্থলে পৌঁছেছেন রাজ্যের মন্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন। তৃণমূল কংগ্রেসের এক প্রাক্তন পঞ্চায়েত প্রধানের স্বামীকে প্রকাশ্যে পিটিয়ে খুন করা হলো তা নিয়ে এলাকার মানুষ কেন নিল না এ নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে? এই খুনের নেপথ্যে অন্য কিছু গভীর রহস্য আছে কিনা তাও তদন্তকারীদের ভাবাচ্ছে! আর কি কারনে কংগ্রেস দল এই খুনের সঙ্গে যুক্ত হবে তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে! ইতিমধ্যে কংগ্রেসের পক্ষ থেকে অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে!

মৃত তৃণমূল নেতার নাম মুস্তাফা শেখ। তাঁর স্ত্রী মালদহের সুজাপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান ছিলেন। তৃণমূলের অভিযোগ, এদিন দুপুরে মসজিদ থেকে নামাজ পড়ে ফিরছিলেন মুস্তাফা। সেই সময় একদল কংগ্রেস কর্মী তাঁকে ঘিরে ধরে বেধড়ক মারধর করতে শুরু করে। লাঠি, রড, বাঁশ দিয়ে বেধড়ক মারধর করা হচ্ছিল। পরে কুপিয়ে খুন করা হয় তাঁকে। এই ঘটনায় এলাকায় তীব্র উত্তেজনা ছড়ায়।

Advertisement

৩৪ নং জাতীয় সড়কে মৃতদেহ ফেলে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন তৃণমূল কর্মীরা। ঘটনাস্থলে রয়েছেন উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন পর্ষদের রাষ্ট্রমন্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন। তাঁর দাবি, “নমাজ পড়ে মসজিদ থেকে বাড়ি ফিরছিলেন মুস্তাফা। রাস্তায় ঘিরে ধরে কুপিয়ে খুন করা হয়েছে তাঁকে। দুষ্কৃতীদের শনাক্ত করা হয়েছে। তাদের দ্রুত গ্রেপ্তার করুক পুলিশ।” রাজ্যের মন্ত্রীর দাবি, “দুষ্কৃতীরা ২৪ ঘণ্টা আগেই কংগ্রেসে যোগ দিয়েছিল। তাদের কড়া শাস্তির ব্যবস্থা করা হোক।”

 

 

 


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ