জেলা 

বিদ্যালয়ে বিপন্ন প্রজাতি তথা জাতীয় ফুলের সংরক্ষণের অভিনব উদ্যোগ ওল্ড মালদা কালাচাঁদ হাইস্কুলের

শেয়ার করুন

গৌরাঙ্গ সরখেল : বিশ্ব পরিবেশ দিবস পালনের আঙিনায় এক অভিনব ও ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নিল মালদা জেলার অন্যতম কালাচাঁদ হাইস্কুল কর্তৃপক্ষ।

বিদ্যালয় প্রাঙ্গনেই পুকুর তৈরি করে ও পদ্মের স্বাভাবিক পাঁক প্রস্তুত করে প্রায় সাত মাস পরিশ্রমের পর এই সাফল্য আসে। প্রধান শিক্ষক শ্রী রাহুল রঞ্জন দাস জানালেন, “প্রায় বিপন্ন হতে বসা পদ্ম ফুলের সংরক্ষণ করতে পেরে খুব ভালো লাগছে। পাঠ্যক্রমের মধ্যে থাকা জলজ উদ্ভিদের অভিযোজন, জলজ বাস্তুতন্ত্রের পরিচিতি ছাত্র-ছাত্রীরা সরাসরি প্রত্যক্ষ করতে পারবে।”

Advertisement

প্রকল্প আধিকারিক বিদ্যালয়ের জীববিদ্যা বিভাগের শিক্ষক ডঃ কমলকৃষ্ণ দাস জানালেন, ” পুকুর তৈরির প্রাথমিক ধাপে একটা সমস্যা তৈরি হয়েছিল মশার ডিম ও লার্ভা নিয়ে, তবে পুকুরে গাপ্পি মাছের চাষ করে সেই সমস্যার সমাধান করা সম্ভব হয়েছে। এখন পুকুরে প্রচুর গাপ্পি মাছ হয়েছে এবং আশ্চর্যজনক ভাবে বিদ্যালয় থেকে সমস্ত ধরনের মশার সংখ্যা কমে গেছে। এটা জৈব নিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি। চাইলে পার্শ্ববর্তী বিদ্যালয়গুলিতে ছোট্ট চৌবাচ্চা তৈরি করে গাপ্পি চাষের মাধ্যমে বাচ্চাদের মধ্যে ডেঙ্গু ও ম্যালেরিয়ার প্রকোপ কমানোর উদ্যোগ নেওয়া যেতে পারে। এইজন্য আমরা বিনামূল্যে সেই বিদ্যালয়গুলিতে গাপ্পির চারা সরবরাহ করতে প্রস্তুত। আদিনা সার্কেলের এস আই শ্রী সৌমিত্র সরকার স্যার এই ব্যাপারে আগ্রহও দেখিয়েছেন।”

রোটারি ক্লাব অব সিল্ক সিটি মালদার সভাপতি শ্রী শুভঙ্কর দাস জানালেন, “আমাদের খুব ভালো লাগছে সামান্য সাহায্য করে বিদ্যালয়ের এই অভিনব উদ্যোগে সামিল হতে পেরেছি বলে।”


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ