কলকাতা খেলা 

বিজেপি সাংসদ ব্রিজভূষণের গ্রেফতারির দাবিতে বিক্ষোভরত মহিলা কুস্তিগীরদের সমর্থনে কলকাতায় মিছিল করলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

শেয়ার করুন

বাংলার জনরব ডেস্ক : একমাসের বেশি সময় ধরে দিল্লিতে বিজেপি সাংসদ ব্রিজ ভূষণ সিং এর বিরুদ্ধে যন্তর মন্তরে অবস্থান বিক্ষোভ করে চলেছে ভারতীয় কুস্তিগীররা। কিন্তু দুঃখের হলেও সত্য এই এক মাসের মধ্যে পশ্চিমবাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাদের পক্ষে একটি ও কথা বলেননি। গতকাল মঙ্গলবার কলকাতায় রাজভবন অভিযান করেছিল এসইউসিয়ার কর্মী সমর্থকরা আজ মহা মিছিলের ডাক দিলেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

দিল্লিতে চলা ভারতীয় কুস্তিগীরদের আন্দোলনকে সমর্থন করে রাস্তায় নামলেন মমতা। হাজরা মোড় থেকে রবীন্দ্র সরোবর পর্যন্ত বুধবার মিছিল করলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী সঙ্গে ছিলেন বিভিন্ন ক্ষেত্রে খেলোয়াড়রা। ছিলেন ক্রীড়া মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস। যাইহোক দেরিতে হলেও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মহিলা কুস্তিগীরদের পাশে দাঁড়িয়েছেন এটাই আনন্দের কথা।

Advertisement

বুধবার নবান্নে বৈঠক শেষ করে কুস্তিগিরদের সমর্থনে মিছিল করলেন মুখ্যমন্ত্রী। মঙ্গলবার ক্রীড়ামন্ত্রীকে তিনি নির্দেশ দিয়েছিলেন কুস্তিগিরদের সমর্থনে একটি মিছিল আয়োজন করার। সেই মতো বুধবার মিছিল বার হয়। সেখানে যোগ দিয়েছিলেন ক্রিকেটার মনোজ তিওয়ারি। তিনি রাজ্যের ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রীও। ছিলেন প্রাক্তন ফুটবলার দীপেন্দু বিশ্বাস, কৃষ্ণেন্দু রায়, গৌতম সরকার, বিদেশ বসু, প্রশান্ত বন্দ্যোপাধ্যায়রাও।

কুস্তি ফেডারেশনের সভাপতি ব্রিজভূষণ বিজেপির সাংসদ। তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে দিল্লির যন্তর মন্তরের সামনে ধর্না দিচ্ছিলেন সাক্ষী মালিক, বজরং পুনিয়ার মতো কুস্তিগির। মঙ্গলবার তাঁরা হরিদ্বারের গঙ্গায় নিজেদের পদক ফেলে প্রতিবাদ জানাতে গিয়েছিলেন। শেষ পর্যন্ত যদিও কুস্তিগিররা পদক বিসর্জন দেননি। কৃষকরা গিয়ে তাঁদের আটকান। কেন্দ্রীয় সরকারকে পাঁচ দিনের সময় দিয়েছেন কুস্তিগিরেরা। এর মধ্যে কোনও ব্যবস্থা না নিলে কুস্তিগিরেরা আরও বড় আন্দোলন করবেন।

ব্রিজভূষণের বিরুদ্ধে দু’টি এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। তাঁর বিরুদ্ধে এক নাবালিকা-সহ বেশ কয়েক জন মহিলা কুস্তিগিরকে হেনস্থার অভিযোগ করেছেন বজরং, সাক্ষীরা। ঘটনার তদন্ত করছে কেন্দ্রীয় সরকারের অধীনে থাকা দিল্লি পুলিশ। ব্রিজভূষণকে গ্রেফতার করার মতো প্রমাণ তারা পায়নি বলে জানিয়েছে। ব্রিজভূষণের গ্রেফতারির দাবিতে গত ২৩ এপ্রিল থেকে যন্তর মন্তরে ধর্না দিচ্ছেন কুস্তিগিররা।

কুস্তিগিরদের সঙ্গে দিল্লিতে দেখা করেছিলেন কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়ঙ্কা গান্ধী। গিয়েছিলেন কংগ্রেস সাংসদ দীপেন্দ্র হুডা। কুস্তিগিরদের পাশে দাঁড়িয়েছে আম জনতা পার্টিও (আপ)। সিপিএমের পলিটব্যুরো সদস্য বৃন্দা কারাট দেখা করেছিলেন কুস্তিগিরদের সঙ্গে।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ