কলকাতা 

ডিএ আন্দোলনকারীদের প্রতিবাদ মিছিলকে কেন্দ্র করে উত্তাল হয়ে উঠল বিকাশ ভবন চত্বর

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : ডিএ আন্দোলনকারীদের প্রতিবাদ মিছিলকে ঘিরে উত্তাল হয়ে উঠল বিকাশ ভবনের সামনে। আজ বুধবার বিভিন্ন দাবি-দাওয়ার ভিত্তিতে বিকাশ ভবন অভিযান করে আন্দোলনকারীরা এই এই অভিযান চলাকালীন সময়ে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে পুলিশের ধস্তাধস্তি হয়। বহুবিক্ষোভকারীকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে যাকে নিয়ে যাকে কেন্দ্র করে উত্তাল হয়ে ওঠে বিকাশ ভবন চত্বর।

ডিএ বা মহার্ঘ ভাতার দাবিতে আন্দোলনকারী সরকারি কর্মচারীদের মূল অভিযোগ, যাঁরা আন্দোলন করছেন, তাঁদের বেছে বেছে বদলি করে দেওয়া হচ্ছে। বাসস্থান থেকে অনেক দূরে ইচ্ছাকৃত ভাবে এই বদলি করা হচ্ছে বলে অভিযোগ। ডিএ-র দাবিতে প্রতিবাদে শামিল হওয়ার কারণেই সরকার এ ভাবে পাল্টা শোধ তুলছে, দাবি বিক্ষোভকারীদের। সেই ‘অন্যায্য’ বদলির প্রতিবাদেই বুধবার বিকাশ ভবনের সামনে বিক্ষোভ মিছিলের আয়োজন করেছিল সংগ্রামী যৌথ মঞ্চ।

Advertisement

আন্দোলনকারীদের বক্তব্য, তাঁরা শান্তিপূর্ণ ভাবেই মিছিল করছিলেন। তাঁদের তরফ থেকে কোনও অশান্তি করা হয়নি। মিছিল ধীরেসুস্থে এগোচ্ছিল বিকাশ ভবনের দিকে। কিন্তু কিছু দূর যাওয়ার পরেই বিনা প্ররোচনায় মিছিলে পুলিশ হস্তক্ষেপ করে বলে অভিযোগ। মিছিল এগিয়ে নিয়ে যেতে বাধা দেওয়া হয়। তার পরেই গোলমাল শুরু হয়।

পুলিশি হস্তক্ষেপের প্রতিবাদে রাস্তায় বসে পড়েন আন্দোলনকারীদের কেউ কেউ। অনেককে বাসের তলায় শুয়ে পড়েও প্রতিবাদ জানাতে দেখা গিয়েছে। সরকার এবং পুলিশের বিরুদ্ধে স্লোগান ওঠে মিছিল থেকে। প্ল্যাকার্ড হাতে পুলিশের গাড়ির সামনে দাঁড়িয়ে প্রতিবাদ জানিয়েছেন তাঁরা। এই গোলমালের ফলে বিকাশ ভবন চত্বরে বিস্তর সমস্যায় পড়েন সাধারণ মানুষ। যানজটও তৈরি হয় ওই এলাকায়।

গোলমালের মাঝে আন্দোলনকারীদের কেউ কেউ অসুস্থ হয়ে পড়েন। রাস্তায় বসেই তাঁদের চোখেমুখে জল ছিটিয়ে দেন অন্যেরা। এক অসুস্থ আন্দোলনকারীর নাম অনামিকা চক্রবর্তী। রাস্তায় বসিয়ে তাঁকে হাওয়া করা হচ্ছিল। জলও খেতে দেওয়া হয়। পরে তাঁকে নিকটবর্তী সল্টলেক সাবডিভিশন হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। সেখানেই তিনি চিকিৎসাধীন।

অভিযোগ, মিছিল ছত্রভঙ্গ করতে ধরপাকড় শুরু করে পুলিশ। আন্দোলনকারীদের মধ্যে থেকে অন্তত ৬০ জনকে আটক করা হয়েছে। তাঁদের নিয়ে যাওয়া হয়েছে বিধাননগর দক্ষিণ থানায়।

প্রতিবাদ কর্মসূচির আহ্বায়ক ভাস্কর ঘোষ জানিয়েছেন, তাঁরা আটক কর্মীদের মুক্তির দাবি নিয়ে থানায় যাচ্ছেন। যদি তাঁদের মুক্তি না দেওয়া হয়, তবে থানা ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখানো হবে। আরও বৃহত্তর আন্দোলনের পথে হাঁটার হুমকিও দিয়েছেন সংগ্রামী যৌথ মঞ্চের সদস্যেরা।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ