দেশ 

হিজাব পড়ে ক্লাসে পড়াতে পারবেন না শিক্ষিকা , উত্তরপ্রদেশে এক বিদ্যালয়ে এই সিদ্ধান্তে ইস্তফা দিলেন ওই শিক্ষিকা

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলার জনরব ডেস্ক : যোগী আদিত্যনাথ  উত্তরপ্রদেশের মসনদে বসার পর থেকেই নানা বিতর্কিত সিদ্ধান্ত নিয়েই চলেছে । ইতিহাস খ্যাত স্থানগুলির নাম পাল্টে দিয়ে তিনি হিন্দুত্বকে প্রতিষ্ঠা করার লক্ষ্যে কাজ করে চলেছেন । তিনি নাকি রামচন্দ্রের আদর্শে রাজ্যকে শাসন করতে চান। রামচন্দ্র মানুষের দাবি মেনে নিজের স্ত্রীর অগ্নি-পরীক্ষা করেছিলেন। কিন্ত যোগীজি রামচন্দ্রের সেই আদর্শের পথে চলতে নারাজ । তিনি এবার সরাসরি ধর্মযুদ্ধ শুরু করে দিয়েছেন।

রাস্তাঘাট থেকে শুরু করে উত্তরপ্রদেশের প্রতিটি স্তরে হিন্দুত্ব প্রতিষ্ঠা করার লক্ষে তিনি যে কাজ শুরু করেছেন তার প্রভাব এবার স্কুল-কলেজে পড়তে শুরু করেছে ।

জানা গেছে যোগী রাম রাজত্বের ফরমুলায় উত্তর প্রদেশে এক মুসলিম স্কুল শিক্ষিকাকে হিজাব খুলতে বাধ্য করায় । তিনি শেষ পর্যন্ত চাকরি থেকে ইস্তফা দিলেন। উত্তর প্রদেশের রাজধানী লখনউ-র এক ইংরেজি মাধ্যম বিদ্যালয়ে ফাতেমা হাসানশিক্ষকতা করতেন । তিনি হিজাব পড়েই স্কুলে যেতেন। কিন্ত স্কুল কর্তৃপক্ষ তাঁকে হিজাব খুলে স্কুলে আসতে বলে ।  কারণ হিসাবে বলা হয় স্কুল কর্তৃপক্ষকে এর জন্য নান প্রশ্নের মুখে হতে হচ্ছে এবং আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হতে হচ্ছে।

সংবাদ  মাধ্যম সূত্রে খবর, ফাতেমা হাসান গত এক বছর থেকে অত্র স্কুলে ইংরেজি শিক্ষিকা হিসেবে কর্মরত ছিলেন, এবং তিনি শুরু থেকে হিজাব পরে স্কুলে আসতেন। এর পূর্বে স্কুল কর্তৃপক্ষর তরফ থেকে কোনো অসুবিধা জানানো হয়নি বা তাকে নিষেধ করা হয়নি। গত অক্টোবর মাসে স্কুলের প্রিন্সিপাল ইংরেজি শিক্ষিকা ফাতেমা হাসানকে জানান, আপনি হেজাব পরিহিত অবস্থায় স্কুল আসতে পারবেন না এবং শিক্ষকতা করতে গেলে হিজাব খুলেই আপনাকে ছাত্র-ছাত্রীদের পড়াতে হবে, কারণ আপনার জন্য স্কুল কর্তৃপক্ষকে আর্থিক ক্ষতির মধ্যে পড়তে হচ্ছে এবং জনগণের কাছে স্কুলের মান সম্মান বিনষ্ট হচ্ছে।

ফাতেমা হাসান এ নির্দেশ পাওয়ার পর গত ৩ নভেম্বর স্কুল থেকে ইস্তফা দেন এবং ইস্তফা পত্রে লিখেন, আমি হিজাব ছাড়া পড়াতে পারবো না, ইস্তফা দেওয়া ছাড়া আমার কাছে অন্য কোন বিকল্প পথ নেই তাই আমি ইস্তফা দিচ্ছি।

 

 

 


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment