দেশ বিনোদন, সংস্কৃতি ও সাহিত্য 

‘দ্য কেরালা স্টোরি’ “কেন পশ্চিমবঙ্গ সিনেমাটি নিষিদ্ধ করবে?” জানতে চাইলো সুপ্রিম কোর্ট

শেয়ার করুন

বাংলার জনরব ডেস্ক : রাজ্যে ‘দ্য কেরালা স্টোরি’ নিষিদ্ধ করা নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে প্রশ্নের মুখে পড়ল মমতা সরকার।  দেশজুড়ে সিনামাটি চললেও বাংলার ক্ষেত্রে তার ব্যতিক্রম হবে কেন, তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন দেশের প্রধান বিচারপতি ডিওয়াই চন্দ্রচূড় এবং বিচারপতি পিএস নরসীমার বেঞ্চ। ‘দ্য কেরালা স্টোরি’ নিষিদ্ধ করার বিরুদ্ধে শীর্ষ আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন সিনেমাটির নির্মাতারা। সেই মামলাতেই পশ্চিমবঙ্গ সরকারের বক্তব্য জানতে চেয়ে নোটিস পাঠাল সুপ্রিম কোর্ট। এর পাশাপাশি তামিলনাড়ু সরকারের বক্তব্যও জানতে চেয়েছে আদালত।

সিনেমাটির প্রয়োজক সংস্থার হয়ে আদালতে সওয়াল করেন আইনজীবী হরিশ সালভে। তিনি আদালতে জানান, আইনশৃঙ্খলার দোহাই দিয়ে সিনেমাটির সম্প্রচার নিষিদ্ধ করার কথা জানান পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এর পাশাপাশি তিনি জানান, তার আগেই সিনেমাটি ৩ দিন ধরে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে চললেও, কোনও সমস্যা হয়নি। তামিলনাড়ুতেও সিনেমাটির প্রদর্শন রুখতে হল মালিকদের হুমকি দেওয়া হয় বলে দাবি করেন তিনি।

Advertisement

রাজ্যের হয়ে সওয়াল করেন আইনজীবী অভিষেক মনু সিঙ্ঘভি। তিনি জানান, সিনেমাটি রাজ্যে চালানো হলে আইনশৃঙ্খলাজনিত সমস্যা হতে পারে বলে গোয়েন্দা রিপোর্ট ছিল। তা ছাড়া কেরল হাই কোর্টও যে সিনেমাটির নির্মাতাদের নিয়ম মেনে চলার কথা বলেছে, সে কথা স্মরণ করিয়ে দেন তিনি। দু’পক্ষের সওয়াল-জবাব শোনার পর প্রধান বিচারপতি বলেন, “সিনেমাটি সারা দেশে মুক্তি পেয়েছে। পশ্চিমবঙ্গ ভারতের অন্যান্য অংশের তুলনায় আলাদা নয়।” তারপরই তাঁর প্রশ্ন, “কেন পশ্চিমবঙ্গ সিনেমাটি নিষিদ্ধ করবে?” একই সঙ্গে তাঁর সংযোজন, “যদি মানুষ মনে করেন সিনেমাটি দেখবেন না, তবে তাঁরা দেখবেন না।”

সপ্তাহের শুরুতেই পশ্চিমবঙ্গ সরকার নিষিদ্ধ করে ‘দ্য কেরালা স্টোরি’ ছবিকে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, রাজ্যের শান্তিশৃঙ্খলা বজায় রাখতেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তিনি আরও জানান, অশান্তি এড়াতেই ছবি নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। ছবিটি নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে গিয়েছিলেন ছবির নির্মাতারা। তাঁরা অবিলম্বে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার আর্জি জানান।

 

 

 


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ