কলকাতা 

অভিষেকের জনসংযোগ যাত্রায় পুলিশ মোতায়নে কত টাকা খরচ ? রাজ্য পুলিশের ডিজিপিকে চিঠি দিয়ে জানতে চাইলেন শুভেন্দু অধিকারী

শেয়ার করুন

বাংলার জনরব ডেস্ক : রাজ্যজুড়ে চলছে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের জনসংযোগ যাত্রা। পঞ্চায়েত ভোটের আগে তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এর জনসংযোগ যাত্রা কে কেন্দ্র করে রাজ্য জুড়ে শোরগোল পড়েছে। ঠিক এই মুহূর্তে অভিষেকের জনসংযোগ যাত্রায় পুলিশ মোতায়েন করতে রাজ্য সরকার বা রাজ্য পুলিশ কত টাকা খরচ করছে তা জানতে চেয়ে রাজ্য পুলিশের বিজেপি মনোজ মালবীয় কে চিঠি লিখলেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী।

সোমবার সকালে ডিজিকে চিঠিটি পাঠানোর পাশাপাশি, টুইটও করেছেন তিনি। যেখানে তৃণমূলের কর্মসূচিতে পুলিশি নিরাপত্তা সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে বেশ কিছু প্রশ্নও তুলে দিয়েছেন। তবে চিঠির কোনও জায়গায় অভিষেকের নাম ব্যবহার করেননি নন্দীগ্রামের বিধায়ক।

Advertisement

উল্লেখ্য, ২৫ এপ্রিল কোচবিহার থেকে জনসংযোগ যাত্রা শুরু করেছেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক। সেই কর্মসূচিতে ভোটের মাধ্যমে পঞ্চায়েত ভোটে দলের প্রার্থী খোঁজার চেষ্টা হচ্ছে। এই কর্মসূচিতে ভোটগ্রহণ করতে গিয়ে কোচবিহার এবং জলপাইগুড়িতে হাঙ্গামা হয়েছে। এমনতিই এই কর্মসূচিতে পুলিশি নিরাপত্তা রয়েছে। কিন্তু ওই দুটি ঝামেলার ঘটনার পর পুলিশি নিরাপত্তা আরো বাড়ানো হয়েছে।

শুভেন্দু লিখেছেন, “তৃণমূল (আঞ্চলিক দল) পুলিশ বাহিনীকে ব্যক্তিগত নিরাপত্তা সংস্থা হিসেবে ব্যবহার করছে। আমি পশ্চিমবঙ্গ পুলিশের ডিজিকে প্রশ্ন করছি, তৃণমূল (আ়ঞ্চলিক দল) এই পঞ্চায়েত স্তরের কর্মসূচিতে পুলিশ বাহিনী মোতায়েন করতে কত অর্থ জমা দিয়েছে, তা আমাকে জানানো হোক।’’ এর পরেই তিনি আরও লিখেছেন, ‘‘যদি এই সংক্রান্ত তথ্য আমাকে না জানানো হয়, তা জনসাধারণের স্বার্থে জানতে আমি আদালতের দ্বারস্থ হব। রাজ্যের কোষাগারকে নিজেদের দলীয় ব্যাঙ্ক হিসেবে ব্যবহার করছে তৃণমূল।’’

চিঠিতে শুভেন্দু ডিজিকে জানিয়েছেন, কোচবিহার-সহ রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় তৃণমূলের এই কর্মসূচিকে যে ভাবে পুলিশ নিরাপত্তা দিচ্ছে। আগামী দিনে যেন রাজ্যের অন্য রাজনৈতিক দলের কর্মসূচিতেও এই ধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থার বন্দোবস্ত করা হয়। রবিবার নন্দীগ্রামে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ‘মন কি বাত’ অনুষ্ঠান শেষে সংবাদমাধ্যমের এক প্রশ্নের জবাবে ডিজিকে এই চিঠি লেখার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন শুভেন্দু। তৃণমূলের কর্মসূচিতে মন দিতে গিয়ে রাজ্যের আইন শৃঙ্খলার ভেঙে পড়েছে বলেও রাজ্য পুলিশের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলেছেন তিনি। শুভেন্দুর ঘনিষ্ঠ মহল জানিয়েছে, বিরোধী দলনেতা জানেন এমন চিঠির জবাব ডিজি দেবেন না। তাই তিনি বিষয়টি নিয়ে আদালতে যাওয়ার সব প্রস্তুতিই সেরে রেখেছেন।

তবে বিরোধী দলনেতার এমন চিঠির জবাবে রাজ্যের কারামন্ত্রী অখিল গিরি বলেন, ‘‘বিরোধী দলনেতা যখন তৃণমূলে ছিলেন তখন তাঁর বাড়ি কাঁথির শান্তিকুঞ্জে ৭০ জন পুলিশ দিনরাত নিরাপত্তায় মোতায়েন থাকতেন। তখন কেন রাজ্যবাসীর কথা মনে পড়েনি তাঁর? এ সব কথা বাজার গরম করার জন্য তিনি বলছেন, আসলে বিরোধী দলনেতার সব কথাই ভিত্তিহীন বলে আমরা মনে করি।’’


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ