জেলা 

অরজ্যোতি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বর্ষবরণ অনুষ্ঠান

শেয়ার করুন

সংবাদদাতা বাংলার জনরব: রাজারহাট গোপালপুর কালীপার্কে সাড়ম্বরে অনুষ্ঠিত হলো বর্ষবরণ ১৪৩০ । গত ১৫ এপ্রিল ২০২৩ ১লা বৈশাখের দিন সন্ধ্যায় গ্রীষ্মের দাবদাহকে উপেক্ষা করে একঝাঁক কচিকাঁচা, কিশোর কিশোরী দর্শক শ্রোতার উপস্থিত তে সম্পূর্ণ বাঙালিয়ানায় আলোচনা, আবৃত্তি,গান ও নাটকে প্রাণবন্ত হয়ে উঠেছিল সমগ্র অনুষ্ঠান। বিশিষ্ট সঙ্গীত শিল্পী ইন্দ্রানী সাহার পরিচালনায় ‘অরোজ্যোতি’ আসলে একটি সঙ্গীত শিক্ষালয়।

বর্ষবরণ ১৪৩০ কে সামনে রেখে আয়োজিত প্রতিষ্ঠানটির বার্ষিক অনুষ্ঠানে গান কবিতা নাটকের পাশাপাশি একটি মনোজ্ঞ আলোচনার সভার আয়োজন করা হয়। প্রতিষ্ঠানের কাছের জন দীপক রায়চৌধুরীর সভাপতিত্বে আয়োজিত আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট কথাশিল্পী সেখ আব্দুল মান্নান, সাহিত্যিক সামসুজ জামান, স্থানীয় বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব নিলীমা সাহা ও মোতি পাল।

Advertisement

শিক্ষালয়ের অধ্যক্ষা ইন্দ্রাণী সাহার পরিচালনায় উদ্বোধনী সংগীত দিয়ে শুভ সূচনা হওয়া এদিনের অনুষ্ঠানে যে সব কচিকাঁচা কিশোর কিশোরী গান কবিতা নাটক পরিবেশন করে তারা হলো অদ্রিজা সাহা, সায়ন্তী সাহা, রিতিশা কর, পরমজিৎ দাস, অদ্রিজা রায়, রাজনন্দিনী বোস,হেমাকেশ মুখার্জী, অহর্ষি চক্রবর্তী,শিয়া পান্ডে, লিয়ানা সরকার, প্রিয়ঙ্কা ঘোষ, দীপক ঘোষ, তাপসী ঘোষ।

এদিন অনুষ্ঠানে অরোজ্যোতির ছাত্র ছাত্রীদের হাতে উৎসাহব্যঞ্জক উপহার সামগ্রী তুলে দেন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক শংকর কুমার ঘোষ, ইন্দ্রাণী সাহা, অমর সাহা,চন্দন ঘোষ, মৃণাল দত্ত,চন্দন দত্ত,তারকনাথ দত্ত ও অঙ্কন রায়।

সংগীতে বিভিন্ন শিল্পীর সঙ্গে সংগত করেন ভবজিৎ দাস, সুদেব ঘোষ ও সংগীতা সাহা। সমগ্র অনুষ্ঠানটি সুচারুভাবে সঞ্চালনা করেন বিশিষ্ট কবি শংকর কুমার ঘোষ।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ