কলকাতা 

অনুব্রতের হুংকারেই কী পিছু হঠল বিজেপি, বীরভুম থেকে নয় , কোচবিহার থেকেই রথযাত্রা শুরু হবে , পিছিয়ে গেল রথযাত্রার তারিখ

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বিশেষ প্রতিনিধি : বিজেপি-র রথযাত্রা পিছিয়ে গেল। বিশেষ সূত্রে জানা গেছে, দলের সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ ৫ তারিখ সময় দিতে পারবেন না। তাই বীরভূম থেকে রথযাত্রার তারিখ পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে। তবে বিজেপি-র পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে , তারিখ পিছিয়ে গেলেও তিনটি রথই ১৬ জানুয়ারি কলকাতায় পৌঁছবে।

৫ ডিসেম্বর বীরভূম থেকে যে রথযাত্রা শুরু হওয়ার কথা ছিল, তা ১৪ ডিসেম্বর শুরু হবে।তাই ৭ ডিসেম্বর উত্তরবঙ্গের কোচবিহার থেকে বিজেপি-র রথযাত্রার কর্মসূচির সূচনা হবে ।  গঙ্গাসাগর থেকে আর একটি রথ ৯ ডিসেম্বর যাত্রা শুরু করবে ।  অন্যদিকে বীরভূম থেকে রথযাত্রা শুরু হওয়ার কথা ছিল ৫ ডিসেম্বর। কিন্তু সেই তারিখটি পিছিয়ে ১৪ ডিসেম্বর করা হয়েছে।

বিজেপি-র রাজ্য সদর দপ্তরে রথযাত্রা নিয়ে এক বৈঠকে এবিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ওই বৈঠকে দলের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক ও সহকারি পর্যবেক্ষক অরবিন্দ মেনন রাজ্য নেতাদের এই কথা জানিয়ে দেন।

তবে বিশেষ সূত্রে জানা গেছে ,শুধু অমিত শাহ-র জন্য রথযাত্রা পিছিয়ে দেওয়া হয়নি , বীরভূমের  তৃণমূল নেতা অনুব্রত মণ্ডল রথযাত্রায় অশান্তি  করতে পারেন, এই আশঙ্কা করে দলের বীরভূম জেলা সভাপতি রাজ্য কমিটিকে একটা রিপোর্ট পাঠিয়েছিল। এতে বলা হয়েছিল যদি অনুব্রত মন্ডল গন্ডগোল সৃষ্টি করে প্রথম দিনই রথযাত্রা বন্ধ করে দেন তাহলে তাতে বিরূপ প্রতিক্রিয়া পড়ার সম্ভাবনা আছে ।

এই রিপোর্ট নিয়ে দিল্লিতে আলোচনা করেন বিজেপি-র কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। আইনশৃঙ্খলার প্রশ্ন তুলে রাজ্য পুলিশ পুরো রথযাত্রা কর্মসূচি বন্ধ করে দিতে পারে বলেও দলের নেতৃত্বের তরফে আশঙ্কা করা হয়। এরপরেই দল সিদ্ধান্ত নেয়, রাজ্যে রথযাত্রা কর্মসূচি বীরভূম থেকে শুরু করা হবে না।

অবশ্য রথযাত্রার দায়িত্বপ্রাপ্ত বিজেপি-র রাজ্য সম্পাদক প্রতাপ বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “আমাদের সর্বভারতীয় সভাপতি ৫ ডিসেম্বর ব্যস্ত থাকবেন। সেজন্যই বীরভূম জেলায় রথযাত্রা কর্মসূচি পিছিয়ে দেওয়া হল।


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সম্পর্কিত নিবন্ধ

Leave a Comment