জেলা 

৬ এপ্রিল হনুমান জয়ন্তী রাজ্যবাসীকে সতর্ক থাকার আহ্বান মুখ্যমন্ত্রীর

শেয়ার করুন

বাংলার জনরব ডেস্ক : আগামী ৬ই এপ্রিল বৃহস্পতিবার হনুমান জয়ন্তী এই দিন রাজ্যবাসীকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানালেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি আজ পূর্ব মেদিনীপুরের খেজুরিতে প্রশাসনিক সভায় বক্তব্য রাখছিলেন সেখানে তিনি বলেন, ‘‘প্রশাসনকে ৬ তারিখ নিয়েও সতর্ক করব। আমাদের ছেলেমেয়েদেরও বলব। আমরা সবাই বজরঙ্গবলীকে সম্মান করি। কিন্তু ওরা যেন আবার অশান্তি করার ছক না কষতে পারে।’’

এদিন মমতা প্রশ্ন তোলেন, ‘‘রামনবমীর মিছিল ৫ দিন হবে কেন? রামনবমীর দিন মিছিল করলে আমাদের কোনও আপত্তি নেই। কিন্তু বন্দুক নিয়ে মিছিল চলবে না।’’ একই সঙ্গে তিনি বলেন, ‘‘অনুমতি ছাড়াই মিছিল করছে। এত রাস্তা থাকা সত্ত্বেও ঢুকে যাচ্ছে সংখ্যালঘু এলাকায়। রমজান মাসে ফল খাওয়া হয়। সেই ফলের গাড়িতে আগুন লাগিয়ে দিচ্ছে। বন্দুক নিয়ে নাচ করছে।’’

Advertisement

এর পরেই মমতা বলেন, ‘‘ধর্ম যার যার নিজের। উৎসব সবার। আনন্দ করুন। ৬ তারিখটার জন্য আমি হিন্দু ভাইবোনেদের দায়িত্ব দিয়ে রাখব। রমজান চলছে। মুসলিম ভাইবোনেদের উপরে যাতে কোনও অত্যাচার না হয় তার জন্য হিন্দু ভাইবোনেরা গ্রামে গ্রামে, জেলায় জেলায় ওদের রক্ষা করবেন। ওদের ভাল করে রক্ষা করবেন, ওরা সংখ্যালঘু। ওরা যেন আমাদের থেকে বিচার পায়। কোনও তফসিলির গায়ে যেন হাত না পড়ে, কোনও আদিবাসীর গায়ে, ছাত্রছাত্রীর গায়ে যেন হাত না পড়ে। আমি যুবসমাজকে বলব, এগিয়ে আসুন। ছাত্র যুবদের মধ্য দিয়ে গান্ধীজিকে, মাতঙ্গিনীকে, বিদ্যাসাগরকে দেখতে পাই।’’ একই সঙ্গে উপস্থিত জনতার উদ্দেশে মমতা প্রশ্ন করেন, ‘‘আপনারা পারবেন না গুন্ডাবাজদের রুখতে? কি কন্যাশ্রী, পারবেন না রুখতে?’’ এর পরেই বলেন, ‘‘আমার কন্যাশ্রী যদি আমার পাশে থাকে, আমি দাঙ্গাবাজদের লড়ে রুখে দেখিয়ে দেব।’’

কিন্তু ওয়াকিবহালমহল মনে করছে এইভাবে আবেগ দিয়ে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা যায় না। মুখ্যমন্ত্রীর উচিত প্রশাসনিক ব্যবস্থাকে আরও তৎপর করা এবং আগাম ব্যবস্থা নেওয়া তা না হলে অশান্তি রোখা কঠিন হবে।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ