দেশ 

”সত্য আমার ঈশ্বর” : রাহুল গান্ধী

শেয়ার করুন

বাংলার জনরব ডেস্ক: ২০১৯ সালে তিনি বলেছিলেন ‘‘সব চোরেদের পদবি ‘মোদী’ হয় কেন?’’ এ নিয়ে গুজরাটের সুরাট আদালতে অপরাধমূলক মানহানি মামলা করেন পূর্ণেশ মোদী। আজ বৃহস্পতিবার সুরাট আদালত সেই অপরাধমূলক মানহানি মামলায় দু’বছরের জেলের সাজা ঘোষণার পর  জানালেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী টুইটারে মহাত্মা গান্ধীর মন্তব্য উদ্ধৃত করে পোস্ট করেছেন। লিখেছেন, ‘‘আমার ধর্ম সত্য এবং অহিংসার উপর প্রতিষ্ঠিত। সত্য আমার ঈশ্বর, অহিংসা তা পাওয়ার মাধ্যম— মহাত্মা গান্ধী।’’

‘মোদী’ পদবি নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্যের দায়ে বৃহস্পতিবার সুরাট জেলা আদালতের বিচারক এইচএইচ বর্মা রাহুলকে দু’বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত করেন। তবে প্রাক্তন কংগ্রেস সভাপতির কিরীট পানওয়ালার আবেদনে সাড়া দিয়ে জামিনের আবেদন মঞ্জুর করেছেন বিচারক। সাজার রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আবেদনের জন্য ৩০ দিন সময়ও দিয়েছেন। ফলে আপাতত ওয়েনাড়ের কংগ্রেস সাংসদের পদ খারিজের সম্ভাবনা নেই বলেই আইন বিশেষজ্ঞদের একাংশ মনে করছেন।

Advertisement

২০১৯ সালের লোকসভা ভোটে কর্নাটকে প্রচারে গিয়ে রাহুল প্রশ্ন তুলেছিলেন, ‘‘সব চোরেদের পদবি ‘মোদী’ হয় কেন?’’ আইপিএল কেলেঙ্কারিতে অভিযুক্ত ললিত মোদী, ব্যাঙ্ক-ঋণ মামলায় ‘পলাতক’ নীরব মোদীর সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর তুলনা টেনেছিলেন তিনি। ওই ঘটনায় রাহুলের বিরুদ্ধে ‘পদবি অবমাননার’ অভিযোগে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৪৯৯ এবং ৫০০ ধারায় অপরাধমূলক মানহানির মামলা করেছিলেন গুজরাতে বিজেপি নেতা পূর্ণেশ মোদী। সেই মামলাতেই দোষী সাব্যস্ত হলেন রাহুল। এর আগে ‘চৌকিদার চোর হ্যায়’ স্লোগানের জন্য রাহুলের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছিল।

২০১৯ সালের ১০ অক্টোবর এই মামলায় সুরাট আদালতে হাজির হয়েছিলেন রাহুল। সে সময়ও নিজের অবস্থানে অনড় থেকে বিচারকের সামনে দেওয়া বয়ানে জানিয়েছিলেন তিনি কোনও ভুল করেননি। পরে টুইটারে লিখেছিলেন, বিজেপি মিথ্যা মামলায় ফাঁসিয়ে তাঁর মুখ বন্ধ করে দেওয়ার চেষ্টা চালাচ্ছে। বৃহস্পতিবারও সেই অবস্থানেই অটল থাকার বার্তা দিলেন তিনি। রাহুলের আইনজীবী জিগ্নেশের দাবি, আদালতে রাহুল জানিয়েছেন তিনি ইচ্ছাকৃত ভাবে কোনও পদবিধারীদের আঘাত করেননি।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত নিবন্ধ